ঢাকা, ২৫ জুন ২০১৮, সোমবার

সুচির পদক বাতিল করলো যুক্তরাষ্ট্রের জাদুঘর

মানবজমিন ডেস্ক | ৮ মার্চ ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১১:২০

অং সান সুচিকে দেয়া সর্বোচ্চ সম্মাননা এবার বাতিল করেছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি জাদুঘর। মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীর নৃশংসতা থামাতে ব্যর্থ হওয়া ও এর নিন্দা জানাতে তার ব্যর্থতার কারণে ওই সম্মাননা কেড়ে নেয় ইউএস হলোকাস্ট মেমোরিয়াল মিউজিয়াম। বুধবার ওই জাদুঘর এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে বলা হয়, অং সান সুচিকে ‘ইলি উইসেল এওয়ার্ড’ দিয়েছিল ওয়াশিংটনের ওই জাদুঘর। কিন্তু তা বাতিল করেছে বা কেড়ে নিয়েছে জাদুঘরটি। এটাই প্রথম নয়, সুচিকে দেয়া এমন আরো অনেক পদক, সম্মাননা কেড়ে নিয়েছে বৃটেনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও সিটি কাউন্সিল। কারণ, তিনি রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নৃশংসতায় নিন্দা পর্যন্ত জানান নি। তিনি পক্ষ নিয়েছেন তার দেশের নিষ্পেষণকারী সেনাদের। যাদের বিরুদ্ধে জাতিসংঘ, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন ও বিভিন্ন প্রামাণ্যচিত্রে নৃশংসতা অভিযোগ আনা হয়েছে। তারা নির্বিচারে নারী ও বালিকাদের ধর্ষণ করেছে। গণহারে হত্যা করেছে। পুড়িয়ে দিয়েছে গ্রামের পর গ্রাম। এসব ঘটনা প্রামাণ্য আকারে উপস্থাপন করা হয়েছে। তারপরও মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এ অভিযোগ অস্বীকার করে। আর তাদের সঙ্গে সুর মিলান সুচি। ওদিকে জাতিসংঘের তদন্তকারীদের সঙ্গে সহযোগিতা করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন অং সান সুচি ও তার দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি। এর ফলে রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা, ঘৃণা বৃদ্ধি পেয়েছে। যেসব এলাকায় নৃশংসতা হয়েছে, নির্যাতন হয়েছে সেখানে সাংবাদিকদের প্রবেশ করতে দেয়া হয় নি। নিজেদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক চিঠিতে অং সান সুচির প্রতি এসব কথা লিখেছে ওয়াশিটনের ওই জাদুঘর কর্তৃপক্ষ। ৬ই মার্চ পোস্ট করা ওই চিঠিতে বলা হয়, আমরা পুরস্কার কেড়ে নিচ্ছি এটা বেদনার। আমরা সহজে এমন সিদ্ধান্ত নিই না। ওদিকে ওয়াশিংটনে অবস্থিত মিয়ানমার দূতাবাসের কোনো কর্মকর্তাকে এ বিষয়ে মন্তব্যের জন্য পাওয়া যায় নি।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।