× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার

বাবার খুনিদের ক্ষমা করে দিয়েছি- রাহুল গান্ধী

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১১ মার্চ ২০১৮, রবিবার, ৩:০৪

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজিব গান্ধীর হত্যাকারীদের ক্ষমা করে দিয়েছেন তার ছেলে ও কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। তিনি ধরে নিয়েছেন তার পিতার এভাবেই মৃত্যু লিখেছিলেন সৃষ্টিকর্তা। রাজিব গান্ধীকে হত্যার প্রায় ২৭ বছর পরে এমন মন্তব্য করলেন রাহুল গান্ধী। এ খবর দিয়েছে অনলাইন জি নিউজ। সিঙ্গাপুরে আইআইএম এলামনাই এসোসিয়েশনের এক বিশাল সভায় তিনি শনিবার বক্তব্য রাখছিলেন। এ সময় তিনি বলেন, যে কারণেই মারা হোক না কেন, আমি ও বোন প্রিয়াংকা ভদ্র গান্ধী বাবার খুনিদের একেবারে মাফ করে দিয়েছি। আমি কোনো প্রকার সহিংসতাকে পছন্দ করি না। তিনি আরো স্বীকার করেন, আমরা জানতাম একদিন বাবাকে হত্যা করা হতে পারে।
আমরা জানতাম বাবাকে মরতে হবে। আমরা জানতাম দাদীকে মারা হতে পারে। রাজনীতিতে যখন আপনি ভুল শক্তির সঙ্গে জগাখিচুড়ি পাকিয়ে ফেলবেন, এবং আপনি কোনো বিষয়ের পক্ষে অবস্থান নেবেন, তখন আপনাকে মরতে হবে। এটা একেবারে পরিষ্কার। রাহুল গান্ধী বলেন, আমার দাদী আমাকে বলেছিলেন তাকে হত্যা করা হতে পারে। আর বাবা! আমি তাকে বলেছিলাম, তাকে হত্যা করা হতে পারে। রাহুল গান্ধী বলেন, রাজনীতিতে আমাদেরকে কাজ করতে হয় শক্তির সঙ্গে, বড় বড় শক্তির সঙ্গে, যা কখনো স্বাভাবিকভাবে দেখা যায় না। আপনাকে লড়াই করতে হয় এমন একটি ‘স্ট্রাকচারের’ সঙ্গে যা শক্তিশালী। তাদেরকে দেখা যায় না। কিন্তু তারা আপনাকে আঘাত করতে পারে। পিতা ও দাদির হত্যাকান্ড নিয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, আমরা অনেক বছর ধরে হতাশ ছিলাম। আহত ছিলাম। আমাদের মধ্যে ভীষণ ক্ষোভ ছিল। কিন্তু যে করেই হোক, পুরোপুরি ক্ষমা করে দিয়েছি।
উল্লেখ্য, ১৯৯১ সালে তামিলনাড়–তে এক নির্বাচনী র‌্যালিতে ২১ শে মে হত্যা করা হয় রাহুল গান্ধীর পিতা তখনকার প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীকে। শ্রীলঙ্কার এলটিটিইর এক আত্মঘাতী নারী তাকে হত্যা করে। এর আগে ১৯৮৪ সালে রাহুল গান্ধীর দাদি ইন্দিরা গান্ধীকে দেহরক্ষীরা হত্যা করে অক্টোবর মাসে। ওই ঘাতকদের সঙ্গে খেলা করতেন তখন রাহুল গান্ধী। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দাদিকে যখন হত্যা করা হলো তখন আমার বয়স মাত্র ১৪ বছর। তার খুনিদের সঙ্গে আমি ব্যাডমিন্টন খেলতাম। এরপর হত্যা করা হলো আমার বাবাকে। এটা করা হলো এমন একটি পরিবেশে যেখানে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত একজন মানুষকে ১৫ জন নিরাপত্তারক্ষী বেষ্টন করে রাখেন। ভারতের আমেথি আসন থেকে নির্বাচিত রাহুল গান্ধী। তিনি কংগ্রেস পার্টির দায়িত্ব কাঁধে নিয়েছেন তার মা সোনিয়া গান্ধীর কাছ থেকে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Haroon
১১ মার্চ ২০১৮, রবিবার, ৬:৫৬

অপরাদির অপরাদ যদি হয় আকাশের সমান ক্ষমা শিলের ক্ষমা হয় আকাশের সমান ।

অন্যান্য খবর