ঢাকা, ১৭ জুলাই ২০১৮, মঙ্গলবার

আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ হলেন নওয়াজ শরীফ

মানবজমিন ডেস্ক | ১৩ এপ্রিল ২০১৮, শুক্রবার, ৪:২১

আজীবনের জন্য পাকিস্তানের নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষিত হয়েছেন দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফে। পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিতে আগেই অযোগ্য ঘোষিত হয়েছেন তিনি। এবার নতুন করে সুপ্রিম কোর্টের এক রায়ে তাকে আজীবনের জন্য রাষ্ট্রীয় পদে অযোগ্য ঘোষণা করা হয়েছে। রায় অনুসারে, এখন থেকে আর কখনো পার্লামেন্ট সদস্য বা সরকারি পদে আসীন হতে পারবেন না সাবেক এই পাক-প্রধানমন্ত্রী। শুক্রবার দেশটির সর্বোচ্চ আদালতের পাচ সদদ্যের একটি বেঞ্চ সর্বসম্মতভাবে এই রায় দিয়েছে। এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা।
খবরে বলা হয়, গত বছরের জুলাই মাসে পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিতে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অযোগ্য ঘোষিত হন নওয়াজ শরীফ। অভিযোগ উঠেছিল, তার ছেলের মালিকানাধীন সংযুক্ত আরব আমিরাত-ভিত্তিক একটি কো¤পানি থেকে বেতন গ্রহণ করেছিলেন তিনি। শরীফ অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তবে, তৎকালীন সময়ে সুপ্রিম কোর্ট জানায়, তিনি বেতন গ্রহণ করেছিলেন কিনা তা গুরুত্বপূর্ণ নয়। তৎকালীন সময়ে তাকে অযোগ্য ঘোষিত করা হলেও, ঠিক কতদিনের জন্য অযোগ্য তা ¯পষ্ট করে বলা হয়নি। অবশেষে শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের রায়ে, সে সময়সীমার বিষয়টি ¯পষ্ট করে জানানো হয়। রায়ে বলা হয়, সংবিধানের আর্টিকেল ৬৮(১) (এফ) এর আওতায় যারা দোষী সাব্যস্ত হবেন তারা আজীবনের জন্য অযোগ্য ঘোষিত হবেন। আর্টিকেল ৬৮(১) (এফ) অনুসারে, পার্লামেন্ট এর কোন সদস্যকে ‘সাদিক’ ও ‘আমিন’(সৎ ও ন্যায়নিষ্ঠ) হতে হবে। শুক্রবারের এই রায় অনুসারে, নওয়াজ শরীফ  ও তারিন আজীবনের জন্য সরকারি পদে নির্বাচন করার অধিকার হারিয়েছেন। রায়টি পড়ে শোনান বিচারক ওমার আতা বানিদাল। তিনি পোরে শোনান, আর্টিকেল ৬৮(১) (এফ)এর আওতায় কেউ অযোগ্য ঘোষিত হলে তা হবে স্থায়ী। এরকম কোন ব্যক্তি আর কখনো নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেনা বা পার্লামেন্টের সদস্য হতে পারবেনা।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।