× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, শনিবার

বর্ণিল আয়োজনে ‘সানসিল্ক হাজারও কণ্ঠে বর্ষবরণ ১৪২৫’

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ এপ্রিল ২০১৮, সোমবার, ৯:০০

বাংলা নববর্ষকে বরণ করে নিতে চ্যানেল আই ও সুরের ধারা শনিবার পহেলা বৈশাখ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ৭ম বারের মতো আয়োজন করে বর্ণিল মঞ্চে নানান রঙের বাংলা বর্ষবরণের অনুষ্ঠান ‘সানসিল্ক হাজারও কণ্ঠে বর্ষবরণ ১৪২৫। এদিন প্রভাতের প্রথম প্রহরে ওঠো ওঠোরে বিফলে প্রভাতও গড়িয়ে যায় যে...গানটি রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার নেতৃত্বে পরিবেশনার মধ্য দিয়ে শুরু হয় বর্ষবরণের মূল অনুষ্ঠান। এরপর দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত হাজারও শিল্পীর কণ্ঠে শুরু হয় বর্ষবরণের গান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে চ্যানেল আইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর বলেন, এত বড় মঞ্চ, এতগুলো শিল্পী, আমার বিশ্বাস পৃথিবীর কোথাও বর্ষকে বরণ করে নিতে এমন আয়োজন হয় না। সাত বছর ধরে চ্যানেল আই ও সুরের ধারা এভাবেই নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে আসছে। সঙ্গে ছিল সাধারণ মানুষের ভালোবাসা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল আইর পরিচালক ও বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা জানাতে আসেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ খ ম মোজাম্মেল হকসহ দেশের বিশিষ্টজনেরা।
বর্ষবরণ এ অনুষ্ঠানে এসেছিলেন বাংলাদেশের বিভিন্ন মিশনের কূটনীতিকরাও। অনুষ্ঠানে আরো সংগীত পরিবেশন করেন মো: খুরশীদ আলম, রথীন্দ্রনাথ রায়, রফিকুল আলম, বাপ্পা মজুমদার, আইয়ূব বাচ্চু, চ্যানেল আই সেরাকণ্ঠ, ক্ষুদে গানরাজ ও বাংলার গানের শিল্পীরা। নৃত্য পরিবেশন করেন চ্যানেল আই সেরা নাচিয়ের শিল্পীরা। পরিবেশিত হয় একদল তরুণীর অংশগ্রহণে ফ্যাশন শো ও মঙ্গল শোভাযাত্রার সঙ্গে নাচ। মেলার স্টলগুলো সাজানো ছিল বাঙালির হাজার বছরের বিভিন্ন ঐতিহ্যের উপাদান, বৈশাখের হরেক রকম পণ্যসামগ্রী দিয়ে। স্টলগুলোতে আরো শোভা পায় পিঠা-পুলি, মাটির তৈরি তৈজস, বেত, কাঁথা, পিতল, পাট-পাটজাত দ্রব্যের জিনিসপত্রসহ রকমারি ও ঐতিহ্যসমৃদ্ধ নানান পণ্যসামগ্রী। বর্ষবরণ উৎসব দুপুর ১২টা পর্যন্ত চ্যানেল আই সরাসরি সমপ্রচার করে। উপস্থাপনা করেছেন ফারজানা ব্রাউনিয়া, মৌসুমী, অপু মাহফুজ ও সাথী। পরিচালনা করেছেন আমীরুল ইসলাম ও শহিদুল আলম সাচ্চু। আগের দিন শুক্রবার সন্ধ্যায় একই স্থানে অনুষ্ঠিত হয় চৈত্রসংক্রান্তি উৎসব বা বর্ষবিদায়।
সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে সম্মিলিত কণ্ঠে সুরের ধারার শিল্পীরা পরিবেশন করেন তা তা থৈ থৈ... এবং ওরে ওরে ওরে আমার মন মেতেছে...ইত্যাদি গান। এ সময় অতিথি মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, চ্যানেল আইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, ইনসেপটা ফার্মাসিউটিক্যালসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল মুক্তাদির, নারী উদ্যোক্তা কনা রেজাসহ দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। পরে রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা সহশিল্পীদের নিয়ে পরিবেশন করেন- তুমি যে সুরের আগুন লাগিয়ে দিলে মোর প্রাণে...। মধ্যরাত পর্যন্ত চলমান অনুষ্ঠানটি সরাসরি সমপ্রচার করেছে চ্যানেল আই। রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যার স্বাগত বক্তব্য শেষে শিল্পীরা মধ্যরাত পর্যন্ত পরিবেশন করে সম্মেলক সংগীত, একক সংগীত, আবৃত্তি, নৃত্য, নৃত্যনাট্য, বিশিষ্টজনদের সাক্ষাৎকার ইত্যাদি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর