ঢাকা, ২৫ জুন ২০১৮, সোমবার

ঊষাকে ছাড়াই ক্লাবকাপ শুরু আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১৬ এপ্রিল ২০১৮, সোমবার, ৯:২১

আসন্ন মৌসুমে খেলছে ঊষা ক্রীড়া চক্র। দল বদলে অংশ নিলেও ঠুনকো অজুহাত দেখিয়ে ক্লাব কাপে খেলছে না মোহামেডান। তাদের সঙ্গে জোট বেঁধেছে বাংলাদেশ স্পোর্টিং ক্লাব, ওয়ারি ক্লাব, সাধারণ বীমা, ওয়ান্ডারার্স ও আজাদ স্পোর্টিং ক্লাব। এদের বাইরে ছয় দলের ক্লাব কাপ হকি প্রতিযোগিতা টার্ফে গড়াচ্ছে আজ। দু’গ্রুপে বিভক্ত হয়ে খেলবে দলগুলো। উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এমপি। প্রয়াত রহমতউল্লাহ’র স্মরণে অনুষ্ঠিতব্য টুর্নামেন্টে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন তারই স্ত্রী নাদিরা রহমতউল্লাহ।
তিন লাখ টাকা বাজেটের টুর্নামেন্টে খেলছে ক-গ্রুপে ঢাকা আবাহনী, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ও বাংলাদেশ পুলিশ হকি ক্লাব এবং খ-গ্রুপে মেরিনার ইয়াংস ক্লাব, অ্যাজাক্স এসসি ও ভিক্টোরিয়া এসসি। দু’গ্রুপের সেরা চার দল সেমিফাইনালে খেলবে এবং সেমিফাইনালে সেরা দু’দল ফাইনালে খেলবে। বিকাল পাঁচটায় আবাহনী ও পুলিশের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে খেলা গড়াবে টার্ফে। চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দল ট্রফি এবং সর্বোচ্চ গোলদাতা ১০ হাজার টাকা প্রাইজমানি পাবে। গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুস সাদেক। এ সময় তিনি বলেন, ‘নির্বাহী কমিটির সভায় আমরা দুটি সিদ্ধান্ত অনুমোদন করিয়েছি। এখন থেকে এই টুর্নামেন্ট খাজা রহমতউল্লাহর নামেই হবে। আর ভিআইপি গ্যালারিও তার নামে করা হবে।’ সাবেক সাধারণ সম্পাদকের নামের টুর্নামেন্টে অবশ্য প্রিমিয়ার লীগের অর্ধেক দলও আনতে পারেনি ফেডারেশন। লীগের ১৩ দলের মধ্যে মৌসুমসূচক এ টুর্নামেন্টে খেলছে মাত্র ৬টি। আবদুস সাদেক স্বীকার করেছেন, এতে টুর্নামেন্টের জৌলুস অনেক কমেছে। গতবারের রানার্সআপ ঊষা খেলবে না সেটা জানাই ছিল। শেষ মুহূর্তে ক্লাব কাপে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে টুর্নামেন্টের চারবারের চ্যাম্পিয়ন মোহামেডান। আরো খেলছে না বাংলাদেশ স্পোর্টিং ক্লাব, ওয়ারি ক্লাব, সাধারণ বীমা, ওয়ান্ডারার্স ও আজাদ স্পোর্টিং ক্লাব। ১৯৯৮ সাল থেকে হয়ে আসা এ টুর্নামেন্টে এবারই রেকর্ডসংখ্যক কম দল খেলছে। ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত সর্বশেষ ক্লাব কাপেও অংশ নিয়েছিল ৮ দল। আমন্ত্রণমূলক টুর্নামেন্ট বলে এ টুর্নামেন্টে কোনো ক্লাব না খেললে ফেডারেশনের কিছু করার থাকে না। তবে এভাবে দলগুলোর অংশগ্রহণ কমে যাওয়ায় টুর্নামেন্টের মর্যাদাও হ্রাস পাচ্ছে। আগামীতে লীগের দলগুলোকে টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া বাধ্যতামলূক করা যায় কি না সেটা ভাবছে ফেডারেশন, ‘আমাদের বাইলজে ক্লাব কাপে খেলা বাধ্যতামূলক নয়। আমরা বাইলজ বদলে এটা বাধ্যতামূলক করা যায় কি না সে চেষ্টা করবো’-বলেন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুস সাদেক।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।