× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার

নববর্ষে শতাধিক শিশু কিশোরকে সিলেটে পাঠশালার বই উপহার

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে | ১৬ এপ্রিল ২০১৮, সোমবার, ৯:২৯

বাংলা নববর্ষের দিনটিতে শতাধিক শিশু-কিশোরের হাতে বই উপহার হিসেবে তুলে দিয়েছে পাঠশালা নামের একটি সংগঠন। শনিবার বেলা তিনটায় নগরের কাজীটুলা উঁচাসড়ক এলাকার বেসিকবেইজ স্কুল প্রাঙ্গণে পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী পর্বে ব্যতিক্রমী এ আয়োজনটি সবার নজর কেড়েছে। লোকসংস্কৃতি গবেষক সুমনকুমার দাশের লেখা ও চৈতন্য প্রকাশন থেকে গত অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত ‘কিশোর-প্রবন্ধ’ বইয়ের শতাধিক কপি শিশু-কিশোরদের তুলে দেয়া হয়। এ সময় আয়োজিত এক সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মুহম্মদ জসিম উদদীন। পুরো অনুষ্ঠানটি সঞ্চালন করেন আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট আবৃত্তিকার নাজমা পারভীন। এ পর্বে আমন্ত্রিত অতিথির বক্তব্য দেন কথাসাহিত্যিক প্রশান্ত মৃধা, সিলেট কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ ডক্টর মোস্তাক আহমাদ দীন, সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক মুকির হোসেন চৌধুরী, সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের সভাপতি মিশফাক আহমদ চৌধুরী, বাংলাদেশ শিশু একাডেমি সিলেটের শিশুবিষয়ক কর্মকর্তা মো. সাইদুর রহমান ভূঞা ও লোকসংস্কৃতি গবেষক সুমন কুমার দাশ। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, নববর্ষের দিনটিতে শিশু-কিশোরদের বই উপহার প্রদানের মাধ্যমে নতুন একটা ব্যতিক্রমী ইতিবাচক ধারার সূচনা ঘটলো। আর এ আয়োজনে সুমন কুমার দাশের বই নির্বাচন করাটাও যথাযথ হয়েছে।
পরে শিশু-কিশোররা গান, নৃত্য ও আবৃত্তি পরিবেশন করে পয়লা বৈশাখ উদযাপন করেছে। এতে পাঠশালার শিল্পীরা ছাড়াও দর্পন থিয়েটার ও বেসিকবেইজ স্কুলের শিক্ষার্থীরা সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় অংশ নেয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর