× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা রম্য অদম্য
ঢাকা, ১৯ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার

কেসিসি নির্বাচন নানা শঙ্কা

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে | ১৬ এপ্রিল ২০১৮, সোমবার, ৯:৫৪

সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের চাহিদামতো নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করবে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি)। ১৫ই মে কেসিসি নির্বাচনকে ঘিরে নগরীতে বহিরাগত সন্ত্রাসী ও অস্ত্রধারীদের আগমন ঘটতে পারে এমন আশঙ্কা করছেন কেউ কেউ। নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী  মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীসহ সাধারণ মানুষের মাঝে এ ধরনের শঙ্কা ইতিমধ্যে বিরাজমান। তবে, কেএমপি কমিশনার মো. হুমায়ুন কবির পিপিএম বলেছেন আমাদের গোয়েন্দা নজরদারি রয়েছে, যেকোনো সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলা করতে পুলিশ প্রস্তুত।  

আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, নির্বাচন কমিশন স্বাধীন। নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে যা যা দরকার তারা তাই করবেন। আমি একজন প্রার্থী হিসেবে সুষ্ঠু পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে সেটাই আশা করি। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে প্রশাসন রয়েছে তারা দায়িত্ব পালন করবেন।


বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, ভোটের নিরাপত্তা চেয়ে আমরা নির্বাচন কমিশনকে স্মারকলিপি দিয়েছি। সাধারণ ভোটাররা যাতে নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে যেতে পারে সেই পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। অবৈধ অস্ত্রধারী ও তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে ভয়হীন পরিবেশ করতে হবে।

কেএমপি পুলিশ সম্পর্কে তিনি বলেন, তারা নিরপেক্ষ নয়, নেতাকর্মীদের নানাভাবে মামলা হামলা করে ক্ষতিগ্রস্ত করছেন। সেনা মোতায়েন করা না হলে ভোটের নিরাপত্তা নিয়ে আশঙ্কা করেন তিনি।  

কেএমপি কমিশনার মো. হুমায়ুন কবির পিপিএম বলেন, এমনিতেই আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার থাকবে। তাছাড়া যদি কোনো প্রার্থী ব্যক্তিগতভাবে নিরাপত্তার বিষয়ে কোনো আবেদন করেন, সে ক্ষেত্রে আমরা চাহিদা মতো নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ‘নির্বাচন কমিশন’ যে ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা চাইবে মেট্রোপলিটন পুলিশ সেভাবেই নিরাপত্তা দিতে প্রস্তুত। কেসিসি নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত তালুকদার আব্দুল খালেক, বিএনপির নজরুল ইসলাম মঞ্জু, জাতীয় পার্টির এসএম শফিকুর রহমান মুশফিক, ইসলামী আন্দোলনের নগর সভাপতি মাওলানা মো. মুজাম্মিল হক ও সিপিবির মিজানুর রহমান বাবু।

মেয়র পদে ৫ প্রার্থীই বৈধ: খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে মেয়র পদে পাঁচ প্রার্থীকেই বৈধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এরা হলেন- আওয়ামী লীগ প্রার্থী দলের মহানগর শাখার সভাপতি তালুকদার আব্দুল খালেক, বিএনপি প্রার্থী দলের মহানগর সভাপতি ও  কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম মঞ্জু, জাতীয় পার্টি শফিকুর রহমান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত অধ্যক্ষ মাওলানা মুজ্জাম্মিল হক এবং বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি মনোনীত প্রার্থী দলের মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বাবু। গতকাল বেলা ১১টায় মেয়র পদে পাঁচ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে রিটার্নিং অফিসার ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী প্রার্থীদের বৈধ ঘোষণা করেন। মেয়র পদে এই পাঁচ জনই মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী প্রার্থিতা প্রত্যাহার করা যাবে ২৩শে এপ্রিল, চূড়ান্ত প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ ২৪শে এপ্রিল।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর