ঢাকা, ১৫ আগস্ট ২০১৮, বুধবার

সংগ্রামী মা খোদেজার গল্প

সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি | ১৩ মে ২০১৮, রোববার, ৭:০৩

নাম খোদেজা, বয়স আনুমানিক ৪৫। প্রতিদিন তাকে দেখা যায় নাটোরের সিংড়া পৌর শহরের হাট-বাজারে। পেশায় একজন কাঁচা তরকারী ব্যবসায়ী হলেও তিনি একজন সংগ্রামী মা। তার বাড়ি পৌর শহরের ২নং ওয়ার্ডের উত্তর দমদমা গ্রামে।

উত্তর দমদমা গ্রামের আঃ খালেকের মেয়ে খোদেজা। ৩০ বছর আগে বিয়ে হয় একই গ্রামের ইউসুফ মোল্লার সঙ্গে। ঘর আলো করে জন্ম নেয় পুত্র সন্তান, খোরশেদ আলম। ছেলের জন্মের পরেই তার সংসার ভেঙ্গে যায়। তারপর থেকেই জীবন যুদ্ধে সংগ্রাম করে বেঁচে আছেন খোদেজা। প্রায় ২৫ বছর যাবৎ সিংড়ার হাট-বাজারে কাঁচা তরকারীর ব্যবসা করে সংসার চালাচ্ছেন তিনি। ছেলেকে ছোট থেকে বড় করে বিয়েও দিয়েছেন। জীবিকার তাগিদে ছেলে এখন স্ত্রীকে নিয়ে থাকেন ঢাকায়। নিয়মিত খোঁজ খবর নেবার পাশাপাশি সংসার চালানোর জন্য প্রতি মাসে কিছু টাকা পাঠায় ছেলে খোরশেদ আলম। গ্রামীণ ব্যাংক থেকে টাকা লোন নিয়ে ব্যবসা শুরু করেন খোদেজা। প্রতি সপ্তাহে ৬১০ টাকা কিস্তি পরিশোধ করতে হয় তাকে। টিনের একটি ছোট ঘরই হতদরিদ্র খোদেজা আবাসস্থল।

সংগ্রামী মা খোদেজা বলেন, প্রতিদিন ১০০-১৫০ টাকা লাভ হয় ব্যবসা করে। বয়স্ক ভাতা ৪ মাসে ১৫০০ টাকা পাই। এছাড়াও বিভিন্ন মানুষের সহযোগীতায় চলে আমার জীবন।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।