× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা রম্য অদম্য
ঢাকা, ২০ অক্টোবর ২০১৮, শনিবার

জিহাদী বই, লিফলেটসহ চার জেএমবি আটক

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী | ১৪ মে ২০১৮, সোমবার, ৭:৫৭

রাজশাহীর গোদাগাড়ীসহ জেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) চার সক্রিয় সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-৫। এ সময় তাদের নিকট থেকে বেশ কিছু জিহাদী বই, জেএমবি’র লিফলেট, মোবাইল ফোন, সিমকার্ড, মেরোরী কার্ড ও তাদের ব্যবহৃত ব্যক্তিগত ডায়েরি জব্দ করা হয়েছে।
গতকাল রোববার রাত থেকে আজ বেলা ১১টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে র‌্যাব-৫ এর একটি বিশেষ টিম তাদেরকে আটক করে। আজ বিকেলে র‌্যাব-৫ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মাহবুব আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
আটককৃতরা হলেন জেলার গোদাগাড়ী পৌর এলাকার রামনগর গ্রামের গোলাম কিবরিয়ার ছেলে  নাঈমুল ইসলাম ওরফে নাঈম (২০), রামনগর গ্রামের আবদুস সালামের ছেলে পিয়ারুল ইসলাম (২১), নগরীর বেলপুকুর থানা এলাকার এলাকার আমজাদ আলীর ছেলে জুয়েল মিয়া (২৮) ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার পশ্চিম কোদালকাটি মধ্যচর গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে সাহাবুল ইসলাম (২৩)।
র‌্যাবের একটি সূত্র জানায়, সম্প্রতি রাজশাহীর তানোরের বিলশহর গ্রামে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি’র সক্রিয় সদস্য সাহেবজান আলীর বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে এবং তার দলের আরও দুই সদস্যকে গান পাউডার, জিহাদি বই এবং বোমা তৈরীর বিভিন্ন উপকরণসহ  গ্রেপ্তার করা হয়। ওই দিন ঘটনাস্থল থেকে আরো কিছু সদস্য পালিয়ে যায়। এছাড়া কিছুদিন আগে পুঠিয়ার জামিরা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে বিদেশি পিস্তল, আইইডি, গান পাউডার, জিহাদি বই ও বোমা তৈরীর বিভিন্ন সরমঞ্জামাদিসহ নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন  জেএমবি’র ৩ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।
জিজ্ঞাসাবাদে এসব জঙ্গি র‌্যাবকে জানায়, তাদের কিছু সদস্য রাজশাহীর গোদাগাড়ী এবং পুঠিয়ার বিভিন্ন এলাকায় বিভিন্ন সময়ে জমায়েত হয়। এরূপ তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৫ এর সদস্যরা এসব এলাকায় অনুসন্ধান ও গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত রাখে।
একপর্যায়ে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল সন্ধ্যা ৭ টা থেকে আজ বেলা  ১১ টা পর্যন্ত গোদাগাড়ীর রামনগর, মহিষালবাড়ী এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরের পশ্চিম কোদালকাঠি মধ্যচর এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এ সময়  গোদাগাড়ীর মহিষালবাড়ীয়া গ্রামের নাঈমুল ইসলামের বাড়ি ঘেরাও করা হয়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের  পেয়ে ৫-৬ জন লোক দ্রুত পালিয়ে যায়। তখন ঘটনাস্থল থেকে জেএমবি’র সক্রিয় সদস্য নাঈমুল ইসলামকে ৭ টি জিহাদী বই, ৩ টি ব্যক্তিগত ডায়েরি, ৭ টি লিফলেট, ১ টি মোবাইল ফোন, ৯ টি সিমকার্ড এবং ৬ টি মেমোরী কার্ডসহ আটক করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে উপজেলার রামনগর গ্রামের পিয়ারুল ইসলামের বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকেও বেশ কয়েকজন পালিয়ে গেলেও বাড়ির মালিক পিয়ারুলকে ৪ টি জিহাদি বই, ১টি ব্যক্তিগত ডায়েরি, ৪ টি লিফলেট, ২ টি মোবাইল ফোন, ৪ টি সিমকার্ড এবং ১ টি মেমোরী কার্ডসহ আটক করা হয়। পরে আটককৃত এই দুই জঙ্গির দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে নগরীর বেলপুকুর থানার বেলপুকুর গ্রামের জুয়েল মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। এসময় অজ্ঞাতনামা ২-৩ জন পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সদরের পশ্চিম কোদালকাঠি মধ্যচর গ্রামের সাহাবুল ইসলামের (২৩) বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে ৪ টি জিহাদী বই, ১ টি লিফলেট, ১ টি  মোবাইল এবং  ১ টি সিমকার্ডসহ হাতেনাতে আটক করা হয়।
র‌্যাব-৫ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মাহবুব আলম জানান, আটককৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে  নিজেদেরকে জেএমবি’র সক্রিয় সদস্য এবং সংগঠনের বিভিন্ন অবৈধ কর্মকা-ের সাথে সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করেছেন। তারা জেএমবিকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে দলীয় মিটিং, উগ্রবাদী বই বিতরণ, এয়ানতের টাকা আদায়, জিহাদি দাওয়াত ইত্যাদি বিভিন্ন কর্মকা-ে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে  আসছেন। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।   

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর