ঢাকা, ১৫ আগস্ট ২০১৮, বুধবার

৪০ ভোটকেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয়ার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৫ মে ২০১৮, মঙ্গলবার, ৯:৪৪

খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে ৪০টি ভোটকেন্দ্রে সরকারদলীয় প্রার্থীর সমর্থকের বিরুদ্ধে বিএনপির পোলিং এজেন্টদের বের করে দেয়ার অভিযোগ করছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু। তিনি অভিযোগ করেন, তারা প্রতিটি ভোটকেন্দ্রের সামনে জটলা পাকাচ্ছেন। বিএনপির পোলিং এজেন্ট, সমর্থক ও ভোটাররা যাতে কেন্দ্রে ঢুকতে না পারেন, এ জন্য ঘেরাও করে রেখে আতঙ্কজনক পরস্থিতি সৃষ্টি করেছেন। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে খুলনা জিলা স্কুল কেন্দ্রে নজরুল ইসলাম মঞ্জু ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনকালে এসব কথা বলেন।
বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম আরো জানান, খুলনা জিলা স্কুল কেন্দ্রে একাডেমিক ভবব-১ ও একাডেমিক ভবন- ২এই দুই ভবনে ভোট হচ্ছে। একটিতে ভোটার ১ হাজার ৩৭০ ও অপরটিতে ২ হাজার ৩৩৮ ভোট। বুথের সংখ্যা ১২। কিন্তু একটিতেও বিএনপির পোলিং এজেন্ট নেই। তাঁদের ঢুকতে দেয়া হচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেন তিনি। এ বিষয়ে একাডেমিক-১ ভবনের প্রিসাইডিং কর্মকর্তার কাজী মোহম্মদ ইব্রাহিম জানান, বিএনপি দলের এজেন্টরা আমার কাছ পর্যন্তহ এসে পৌঁছায়নি। একই রকম কথা বলেন একাডেমিক ভবন-২ এর প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আতিয়ার রহমান।
মঞ্জু জানান, তিনি যে ৫-৬টি কেন্দ্রে গেছেন, সেসব কেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টদের মারধর করা হয়েছে। কেন্দ্রের ভেতর ঢুকতে দেওয়া হয়নি। রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে বিএনপির পক্ষ থেকে দেয়া ৪০টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে রয়েছে ১১, ১৩, ১৫, ২২, ২৫, ২৮, ২৯, ৩০, ৩১ নং ওয়ার্ড।
বিএনপির মেয়র প্রার্থী এসব কেন্দ্রের অবস্থা তুলে ধরে সাংবাদিকদের বলেন, কোনো ভোটই হচ্ছে না। অবস্থা খুবই খারাপ। আমার এজেন্টদের মারধর করে কেন্দ্রের বাইরে থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।


tahir

১৫ মে ২০১৮, মঙ্গলবার, ১২:৩২

it is not an election but practice of next parliament election.