× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার

‘আমি নিজেকে সেরা মনে করি না’

ফিফা বিশ্বকাপ-২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক | ৬ জুন ২০১৮, বুধবার, ৯:৪০

আমি নিজেকে সেরা ভাবি না। আমি অন্য সবার মতোই আরেকজন খেলোয়াড়। কথাগুলো লিওনেল মেসির। বিশ্বকাপ সামনে রেখে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ‘পেপার’ ম্যাগাজিনকে সাক্ষাৎকার দেন মেসি। ফটোশ্যুটে ছাগল (গোট) কোলে নিয়ে পোজ দেন বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন আইকন! গোট কেন? পেপার তাদের আর্টিক্যালের নাম দিয়েছে ‘লিও মেসি ইজ দ্য গোট (জি.ও.এ.টি)। যার পুরো অর্থ দাঁড়ায় ‘দ্য গ্রেটেস্ট অব অল টাইম’। কিন্তু বিনয়ী মেসি নিজেকে মোটেও সর্বকালের সেরা ভাবতে চান না। এ বিষয়টি ছাড়াও প্রাণীদের প্রতি ভালোবাসা, বিশ্বকাপ প্রস্তুতি, বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার সম্ভাবনা নিয়ে কথা বলেন মেসি।
মানুষ যখন তাকে সেরা বলে তখন মেসির অনুভূতি কেমন হয়? খেলা শুরুর পর সবাই সমান খেলোয়াড় এটিই মনে রাখার চেষ্টা করেন মেসি। তার কথায়, ‘আমি নিজেকে সেরা মনে করি না। আমি মনে করি আমি কেবলই আরেকজন খেলোয়াড়। মাঠে খেলা শুরুর পর আমরা সবাই সমান।’ পশুপাখির প্রতি মেসির ভালোবাসা আজীবনের। মেসি বলেন, ‘আমি প্রাণীদের বড় ভক্ত। তাদের সঙ্গে বেড়ে উঠেছি এবং তারা আমাকে অনেক শিক্ষা দিয়েছে। এখন আমাদের কুকুর হাল্ক রয়েছে। সে আমাদের পরিবারেরই অংশ। তাকে সব সময়ই নিজেদের মধ্যে রাখি। হাল্কের কাছ থেকে আমাদের বাচ্চারাও অনেক কিছু শিখছে। তার ও বাচ্চাদের প্রতি ভালোবাসা সবসময় থাকবে।’ এবার বিশ্বকাপ প্রসঙ্গে আসা যাক। অধরা বিশ্বকাপ জয়ের এটাই ‘শেষ সুযোগ’ ত্রিশ বছর বয়সী মেসির। নিজেদের প্রস্তুতি নিয়ে মেসি বলেন, ‘ভালোভাবে প্রস্তুতি নেয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ আমরা বাছাইপর্বের শেষ পর্যন্ত সংগ্রাম করেছি এবং নিজেদের প্রস্তুত করার পর্যাপ্ত সময় পায়নি।’ গত আসরের রানার্সআপ আর্জেন্টিনাকে বড় ফেভারিট তালিকায় রাখছেন না মেসি। রাশিয়ায় নিজ দলের সম্ভাবনা নিয়ে মেসির বিশ্লেষণ, ‘বিশ্বকাপ জিততে হলে দল হিসেবে আমাদের আরো শক্তিশালী হতে হবে। ফ্রান্স, জার্মানি, ব্রাজিল অথবা স্পেন দলের মতো একই পর্যায়ে থাকতে হবে। কিন্তু আমাদের একঝাঁক ভালো খেলোয়াড় রয়েছে এবং আর্জেন্টিনা সবসময়ই শিরোপার দাবিদার। আমরা কীভাবে বিশ্বকাপে যাচ্ছি তা কোনো বিষয় না। প্রতিবারই আমাদের লক্ষ্য থাকে শিরোপা জয়। আমরা ধীরেসুস্থে বিশ্বকাপে পা রাখতে চাই কিন্তু প্রতিযোগিতায় অগ্রসর হতে চাই দৃঢ়তার সঙ্গে।’ আর্জেন্টিনা কঠিন সময় অতিক্রম করতে পারে বলে মনে করেন মেসি। ‘আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় দিক হলো সমসময় তারা কঠিন সময় অতিক্রম করার সামর্থ্য রাখে। একত্রিত থেকে কাঙ্ক্ষিত মুহূর্তে পৌঁছানোর সক্ষমতা আমাদের রয়েছে। সমর্থকদের জন্য এটা এমন কিছু যেটিকে আমি অনেক মূল্যবান মনে করি।’ লক্ষ্য অর্জনের পথে বাস্তবতার দিকটিও অনুধাবন করেন মেসি। বলেন, ‘বছরের পর বছর ধরে আমি এটিও উপলব্ধি করেছি যে, স্বপ্নের মধ্যে আচ্ছন্ন হয়ে থাকা মোটেও ভালো নয়। এটা চাপ বৃদ্ধি করে এবং লক্ষ্য অর্জনের সম্ভাবনাও কমিয়ে দেয়।’ বিশ্বকাপ সামনে রেখে মেসির ক্লাব বার্সেলোনার অনুশীলন মাঠে ব্যস্ত সময় পার করছে আর্জেন্টিনা দল। এর আগে আর্জেন্টিনায় নিজেদের ঝালিয়ে নেয় কোচ হোর্হে সাম্পাওলির শিষ্যরা। বুয়েন্স আয়ার্সে হাইতির বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ৪-০ গোলের জয়ে বিশ্বকাপে বার্তা দিয়ে রাখে আলবিসেলেস্তেরা। ম্যাচটিতে হ্যাটট্রিক করেন মেসি। রাশিয়ায় উড়াল দেয়ার আগে আগামী ৯ই জুন ইসরাইলে আরেকটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা আর্জেন্টিনার। মস্কোতে ১৬ই জুন আইসল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশনে নামবে দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা। ‘ডি’ গ্রুপের অপর দুই দল ক্রোয়েশিয়া ও নাইজেরিয়া। ২১শে জুন ক্রোয়েশিয়া ও ২৬শে জুন নাইজেরিয়ার মুখোমুখি হবে মেসির আর্জেন্টিনা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর