ঢাকা, ১৮ আগস্ট ২০১৮, শনিবার

আব্বাসি-ইমরান প্রতিদ্বন্দ্বিতা!

মানবজমিন ডেস্ক | ১১ জুন ২০১৮, সোমবার, ৯:৪৩

পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খানের মুখোমুখি হতে পারেন সদ্য ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ানো অন্তর্বর্তী প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি। তার ঘনিষ্ঠ কিছু সূত্র এমনটা জানিয়েছেন। ওদিকে সাবেক স্বৈরশাসক পারভেজ মোশাররফের জন্য সংগ্রহ করা হয়েছে মনোনয়নপত্র। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডন। এতে আরো বলা হয়েছে, ইমরান খান এরই মধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন জাতীয় পরিষদের ৫৩ নম্বর আসন (ইসলামাবাদ) থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দিয়েছেন। এ আসনেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন শাহিদ খাকান আব্বাসি। এ ছাড়া তিনি তার নিজের ৫৭ নম্বর আসন থেকেও নির্বাচন করছেন। মারি, কোটলি সাত্যিয়ান ও কাহুটা নিয়ে এই আসনটি। অতীতে তিনি এ আসনে বিজয়ী হয়েছেন ৬ বার। এবার জাতীয় পরিষদের ৫৩ নম্বর আসনে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের কোনো স্থানীয় যোগ্য প্রার্থী পাওয়া যাচ্ছে না, যিনি ইমরানের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে থাকতে পারেন। তাই এ আসনে পিএমএলএনের হয়ে দাঁড়াতে পারেন আব্বাসি। সূত্র বলেছে, এখনো এ বিষয়টি নিশ্চিত হয় নি। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে দলের শীর্ষস্থানীয় নেতারা। আব্বাসি যে মারি ও কোতলি সাত্যিয়ানের সেখানকার বহু মানুষের বসবাস ইসলামাবাদে। ফলে তিনি ইমরান খানের বিরুদ্ধে এখানে ভালো সমর্থন পেতে পারেন। তবে এ আসনে জাতীয় পরিষদের সাবেক সদস্য সৈয়দ জাফর আলী শাহ, গুলগ্রান চেয়ারম্যান রাজা ওয়াকার মুমতাজ, এম সাজিদ আব্বাসি এ আসনে পিএমএলএনের টিকিট পাওয়ার আশা করছেন। ওদিকে জাতীয় পরিষদের ২৪৭ নম্বর আসনের জন্য প্রতিনিধির মাধ্যমে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন পারভেজ মোশাররফ। এ আসনটি ক্লিফটন, ডিফেন্স, করাচি ক্যান্টনমেন্ট, সাদ্দার ও আরামবাগ এলাকা নিয়ে গঠিত। রাষ্ট্রদ্রোহের দায়ে অভিযুক্ত সাবেক এই জেনারেলকে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট। তবে সেক্ষেত্রে তাকে শর্ত দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, তিনি ১৩ই জুন যদি লাহোরে সশরীরে উপস্থিত হতে পারেন তাহলেই তাকে মনোনয়নপত্র জমা দিতে দেয়া হবে। সম্প্রতি পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি সাকিব নিসারের নেতৃত্বে তিন বিচারকের বেঞ্চ আপিলের শুনানি করে। পেশোয়ারের হাইকোর্ট তাকে ২০০৭ সালের নভেম্বরে জরুরি অবস্থা জারির কারণে যাবজ্জীবনের জন্য অযোগ্য ঘোষণা করেছিল। সেই রায়ের বিরুদ্ধে ওই আপিল করেছিলেন মোশাররফ। আপিল শুনানিতে সুপ্রিম কোর্ট আসন্ন নির্বাচনে সাবেক এই জেনারেলের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করতে অনুমতি দিয়েছেন রিটার্নিং অফিসারদের।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।