ঢাকা, ১৯ জুন ২০১৮, মঙ্গলবার

সুুয়ারেজকে থামাতে কামড়!

স্পোর্টস ডেস্ক | ১২ জুন ২০১৮, মঙ্গলবার, ১০:১৭

লুইস সুয়ারেজ ও মোহাম্মদ সালাহকে থামানোর কৌশল খুঁজছে রাশিয়া। বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে স্বাগতিক শিবিরকে সুয়ারেজের উরুগুয়ে ও সালাহর মিশরকে সামলাতে হবে। সুয়ারেজ ও সালাহ্‌র মতো ফরোয়ার্ডদের থামানোর উপায় কি? এই প্রশ্নে রাশিয়ান সেন্টারব্যাক ইলিয়া কুতেপভ তুলে আনেন বিতর্কিত দুইটি ইস্যু। সুয়ারেজের মুখোমুখি হওয়ার চ্যালেঞ্জ নিয়ে কুতেপভ বলেন, ‘আমি কি সুয়ারেজকে ভয় পাই? অবশ্যই না। প্রয়োজন হলে আমিও তাকে কামড় দিতে পারি।’ সুয়ারেজের ক্যারিয়ারে কলঙ্ক হয়ে থাকবে কামড়ের ঘটনা। ২০১৪ বিশ্বকাপে ইতালির জর্জিও কিয়েলিনিকে কামড় দেয়ার দায়ে সুয়ারেজকে ৯টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ ও চার মাসের জন্য ফুটবল থেকে নিষিদ্ধ করে ফিফা। সবশেষ ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ফাইনালে মোহাম্মদ সালাহর ছিটকে পড়ার দৃশ্য ভুলতে পারবে না লিভারপুল। বল দখলের লড়াইয়ে সালাহর হাত টেনে ধরে রাখেন রিয়াল মাদ্রিদ অধিনায়ক সার্জিও রামোস। ভারসাম্য হারিয়ে কাঁধে চোট পান সালাহ। ত্রিশ মিনিটের মাথায় মাঠ ছাড়েন অশ্রুসিক্ত হয়ে। কুতেপভ সেই কথাই স্মরণ করিয়ে দিলেন। তার কথায়, সালাহকে কিভাবে থামাতে হবে তা রামোস দেখিয়ে দিয়েছেন! ২৪ বছর বয়সী এই ডিফেন্ডার বলেন, ‘সালাহর খেলা আমাকে চিন্তিত করে না। আপনি তাকে কিভাবে থামাবেন? উদাহরণ হিসেবে সার্জিও রামোস যা করেছেন তা প্রয়োগ করা যেতে পারে। তিনি আমাদের সালাহকে থামানোর একটি উপায় দেখিয়েছেন। তবে ফাইনালে (চ্যাম্পিয়ন্স লীগ) সালাহর ইনজুরি দেখে হতাশ হয়েছি এটা আমি বলতে পারি না। আমি তার দ্রুত সুস্থতা কামনা করি। সালাহর মুখোমুখি হলে আমি খুশিই হবো কারণ এমন খেলোয়াড়ের বিপক্ষে খেলতে পারলে নিজেরও দক্ষতা বাড়বে।’ সালাহ নিজেও উরুগুয়ের বিপক্ষে (১৫ই জুন) গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচ থেকে খেলার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী। ১৪ই জুন বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে সৌদি আরবকে আতিথ্য দেবে রাশিয়া।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।