ঢাকা, ২৪ জুন ২০১৮, রোববার

সিলেট সিটির ৭৪৮ কোটি টাকার বাজেট

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে | ১৩ জুন ২০১৮, বুধবার, ৯:৫০

সিলেট সিটি করপোরেশনের ৭৪৮ কোটি টাকারও বেশি পরিমাণের বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে সিলেট নগরীর একটি হোটেলের হলরুমে এক সংবাদ সম্মেলনে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের এই বাজেট ঘোষণা করেন সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। সমপরিমাণ আয় ও সমপরিমাণ ব্যয় ধরে ৭৪৮ কোটি ৬৪ লাখ ৪০ টাকার বাজেট ঘোষণা করেন মেয়র। বাজেটের উল্লেখযোগ্য আয়ের খাতগুলো হলো- হোল্ডিং ট্যাক্স ১৭ কোটি ৬৫ লাখ ৪৪ হাজার টাকা, স্থাবর সম্পত্তি হস্তান্তরের উপর কর ৮ কোটি টাকা, ইমারত নির্মাণ ও পুনঃনির্মাণের উপর কর ২ কোটি টাকা, পেশা ব্যবসার উপর কর ৮ কোটি ৫০ লাখ টাকা, বিজ্ঞাপনের উপর কর ১ কোটি টাকা, পানির সংযোগ লাইনের মাসিক চার্জ বাবদ ৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা, পানির লাইনের সংযোগ ও পুনঃসংযোগের ফি এক কোটি টাকা, নলকূপ স্থাপন অনুমোদন ও নবায়ন ফি ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা প্রভৃতি। বাজেট বক্তৃতায় মেয়র বলেন, ‘যানজট এবং ফুটপাত দিয়ে চলাচলের সমস্যাটি সবসময় আলোচনায় আসে। ফুটপাত মুক্ত করার জন্য সিটি করপোরেশনের উপর নাগরিকদের চাপ থাকে। ফুটপাতকে হকারমুক্ত করতে সবাই দাবি জানান। অতি সমপ্রতি ফুটপাত মুক্ত হওয়ার বিষয়টি আলোচনায় ওঠে এসেছে। এ বিষয়ে একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাও সংঘটিত হয়েছে, যা খুবই দুঃখজনক।’ মেয়র বলেন, ‘বিগত বছর আমি ফুটপাত সম্পর্কে বিভিন্ন পেশাজীবী সংস্থা, সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, কর্মকর্তা এবং রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বৈঠক করেছি। চলতি বছরও এই বিষয়ে বৈঠক করেছি। তাদেও মূল্যবান মতামতের আলোকেই সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে। হকারদের যাতে সত্যিকার অর্থে পুনর্বাসন করা সম্ভব হয় সেজন্য ইতিমধ্যে আমরা লালদিঘী মার্কেটকে ভেঙে নতুনভাবে নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। এই লক্ষ্যে ডিজাইন করার জন্য কনসালটেন্ট নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে।’

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।