× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা রম্য অদম্য
ঢাকা, ২০ অক্টোবর ২০১৮, শনিবার

বিশ্বকাপের অজানা সব তথ্য

ফিফা বিশ্বকাপ-২০১৮

| ১৪ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১০:৫৩

আজ মস্কোর লুঝানিকি স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবলের ২১তম আসর। সারা বিশ্বের ক্রীড়াপ্রেমীদের চোখ এখন রাশিয়ায়। ১১টি শহরের ১২টি ভেন্যু পুরোপুরি প্রস্তুত। সাজিয়ে বসেছে তারা বিশ্বকাপের পসরা। স্বাগত জানাচ্ছে পুরো বিশ্বকে। ফুটবলপ্রেমীরা শুধু রাশিয়া বিশ্বকাপকেই নয়, জানার চেষ্টা করছেন বিশ্বকাপের ইতিহাস। খুঁজে ফিরছেন নানান পরিসংখ্যান। তাই পাঠকদের কথা চিন্তা করেই সব পরিসংখ্যান নিচে তুলে ধরা হলে।




* অন্তত ১০টি গোল করেছেন যারা
বিশ্বকাপের টুকিটাকি
সবচেয়ে বেশি জয়
৫: ব্রাজিল (১৯৫৮, ১৯৬২, ১৯৭০, ১৯৯৪, ২০০২)
সবচেয়ে বেশি ফাইনালিস্ট
৮: জার্মানি (১৯৫৪, ১৯৬৬, ১৯৭৪, ১৯৮২, ১৯৮৬, ১৯৯০, ২০০২, ২০১৪)
সেরা তিনে সবচেয়ে বেশিবার থাকা দল
১২: জার্মানি (১৯৩৪, ১৯৫৪, ১৯৬৬, ১৯৭০, ১৯৭৪, ১৯৮২, ১৯৮৬, ১৯৯০, ২০০২, ২০০৬, ২০১০, ২০১৪)
সবচেয়ে বেশি সেরা চারে থাকা দল
১৩: জার্মানি (১৯৩৪, ১৯৫৪, ১৯৫৮, ১৯৬৬, ১৯৭০, ১৯৭৪, ১৯৮২, ১৯৮৬, ১৯৯০, ২০০২, ২০০৬, ২০১০, ২০১৪)
সবচেয়ে বেশি সেরা আটে থাকা দল
১৭: জার্মানি (১৯৩০, ১৯৩৮ ও ১৯৫০ ছাড়া প্রতিটি বিশ্বকাপে), ব্রাজিল (১৯৩৪, ১৯৬৬ ও ১৯৯০ ছাড়া প্রতিটি বিশ্বকাপে)
সবচেয়ে বেশি সেরা ১৬’য় থাকা দল
২০: ব্রাজিল (প্রতিটি টুর্নামেন্টেই)
বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি অংশগ্রহণ
২১: ব্রাজিল (প্রতিটি টুর্নামেন্টেই)
বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি রানারআপ
৪: জার্মানি (১৯৬৬, ১৯৮২, ১৯৮৬, ২০০২)
বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি তৃতীয়স্থান হওয়া দল
৪: জার্মানি (১৯৩৪, ১৯৭০, ২০০৬, ২০১০)
বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি চতুর্থ হওয়া দল
৩: উরুগুয়ে (১৯৫৪, ১৯৭০, ২০১০)
বিশ্বকাপে টানা চ্যাম্পিয়ন
২: ইতালি (১৯৩৪-১৯৩৮) এবং ব্রাজিল (১৯৫৮-১৯৬২)
বিশ্বকাপে প্রথম গোল
লুসিয়েন লরেন্ত (ফ্রান্স) বনাম মেক্সিকো, ১৩ই জুলাই ১৯৩০
বিশ্বকাপে সবচেয়ে কম বয়সী গোল
১৭ বছর, ৭ মাস ২৭ দিন বয়সে, পেলে (ব্রাজিল) বনাম ওয়েলস, ১৯ জুন, ১৯৫৮
বিশ্বকাপে সবচেয়ে কম বয়সী হ্যাটট্রিককারী
১৭ বছর, ৮ মাস ১ দিন বয়সে, পেলে (ব্রাজিল) বনাম ফ্রান্স, ২৪শে জুন, ১৯৫৮
বিশ্বকাপ ফাইনালে সবচেয়ে কম বয়সী গোলদাতা
১৭ বছর, ৮ মাস ৬ দিন বয়সে, পেলে (ব্রাজিল) বনাম সুইডেন, ১৯শে জুন, ১৯৫৮
বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি বয়সী গোলদাতা
৪২ বছর, ১ মাস এবং ৮ দিন বয়সে, রজার মিলার (ক্যামেরুন) বনাম রাশিয়া, ২৮ জুন, ১৯৯৪
বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি বয়সী হ্যাটট্রিককারী
৩৩ বছর, ৫ মাস এবং ৮ দিন বয়সে তোরে কেলার (সুইডেন) বনাম কিউবা, ১২ই জুন, ১৯৩৮
বিশ্বকাপ ফাইনালে সবচেয়ে বেশি বয়সী গোলদাতা
৩৫ বছর, ৮ মাস এবং ২১ দিন বয়সে নিলস লিয়েন্ডলম (সুইডেন) বনাম ব্রাজিল, ২৯শে জুন ১৯৫৮
বিশ্বকাপে সবচেয়ে দ্রুততম গোল
১১ সেকেন্ডে: হাকান সুকুর (তুরস্ক) বনাম দক্ষিণ কোরিয়া, ২০০২
বিশ্বকাপে সবচেয়ে দ্রুততম গোল (বদলি হিসেবে)
১৬ সেকেন্ড, এডি স্যান্ড (ডেনমার্ক) বনাম নাইজেরিয়া, ১৯৯৮
বিশ্বকাপ ফাইনালে সবচেয়ে দ্রুততম গোল
৯০ সেকেন্ড, ইয়োহান নিসকেন্স (নেদারল্যান্ডস) বনাম পশ্চিম জার্মানি, ১৯৭৪।
সংখ্যা তথ্য
৩০০: ১৯৩০ প্রথম বিশ্বকাপে রোমানিয়া এবং পেরুর ম্যাচে মাত্র ৩০০ জন দর্শক উপস্থিত হয়েছিল। যা বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে কম দর্শক উপস্থিত হওয়ার ঘটনা।
৪২: বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়সী ফুটবলার রজার মিলার। ১৯৯৪ বিশ্বকাপে ৪২ বছর বয়সে ক্যামেরুনের হয়ে বিশ্বকাপে খেলতে নামেন তিনি।
৭০: বিশ্বকাপে ব্রাজিলের মোট জয়ের সংখ্যা। ১৯৩০ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ব্রাজিল মোট ১০৪টি ম্যাচ খেলে জয় পেয়েছে ৭০টিতে। হেরেছে ১৭টি আর ড্র করেছে ১৭টিতে।
১৭: নরম্যান হোয়াইটসাইড। বিশ্বকাপের সবচেয়ে কমবয়সী ফুটবলার। ১৯৯২ সালে মাত্র ১৭ বছর ৪১ দিন বয়সে আয়ারল্যান্ডের হয়ে বিশ্বকাপ খেলতে নামেন তিনি।
১২: বিশ্বকাপে এক ম্যাচে সবচেয়ে বেশি গোল। ১৯৫৪ বিশ্বকাপে অস্ট্রিয়া এবং সুইজারল্যান্ডের ম্যাচ শেষ হয় ৭-৫ ব্যবধানে।
২৭: ১৯৫৪ সালের বিশ্বকাপে হাঙ্গেরির মোট গোলের সংখ্যা। বিশ্বকাপের এক আসরে কোনো একে দলের সর্বোচ্চ গোলের সংখ্যাও এটি। ওই বিশ্বকাপে হাঙ্গেরি ফাইনালেও গিয়েছিল। কিন্তু পশ্চিম জার্মানির কাছে ৩-২ গোলে হেরে শিরোপা বঞ্চিত থাকতে হয় তাদেরকে।
১৯৯৯৫৪: বিশ্বকাপের ইতিহাসে কোনো এক ম্যাচে সবচেয়ে বেশি দর্শকের উপস্থিতি। ১৯৫০ বিশ্বকাপের শিরোপা নির্ধারণী শেষ ম্যাচে ব্রাজিল আর উরুগুয়ের খেলা দেখার জন্য রিও ডি জেনিরোর মারাকানা স্টেডিয়ামে উপস্থিত হয়েছিল ১ লাখ ৯৯ হাজার ৯৫৪ জন দর্শক।
২৩০০: বিশ্বকাপে সর্বমোট গোলের সংখ্যা। ১৯৩০ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ২০টি বিশ্বকাপে সর্বমোট গোল হয়েছে ২ হাজার ৩০০টি। এর মধ্য থেকে বাদ দেয়া হয়েছে টাইব্রেকারের পেনাল্টি শটগুলো। জার্মানি সর্বোচ্চ ২২৪টি গোল করেছে।
১৬: মাঠে নামার ১৬ সেকেন্ডের মধ্যেই গোল। ১৯৯৮ বিশ্বকাপে নাইজেরিয়া বিরুদ্ধে দ্বিতীয় রাউন্ডে পরিবর্তিত খেলোয়াড় হিসেবে ৫৯ মিনিটে মাঠে নেমে মাত্র ১৬ সেকেন্ডের মাথায় গোল করেন ডেনমার্কের এবি স্যান্ড। যা এখনও পরিবর্তিত খেলোয়াড় হিসেবে দ্রুততম গোল করার রেকর্ড।
১১: বিশ্বকাপে সবচেয়ে দ্রুততম গোল। ২০০২ বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে তুরস্কের হাকান সুকুর মাত্র ১১ সেকেন্ডের মাথায় গোল করেন।
২২১: বিশ্বকাপে ব্রাজিলের গোলসংখ্যা। বিশ্বকাপের ইতিহাসে একমাত্র ব্রাজিলই সব বিশ্বকাপে খেলে ২২১টি গোল করেছে। সবচেয়ে বেশ ম্যাচ জিতেছেও তারা। ১০৪ ম্যাচ খেলে জয় ৭০৬টিতে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর