ঢাকা, ১৯ আগস্ট ২০১৮, রোববার

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী খেলায় প্রথম এশিয়ান দল সৌদি আরব

বিশ্বকাপ ডেস্ক | ১৪ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৬:৫২

২০১৮ বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করার পর তৎকালীন কোচ বার্ট ভ্যান মারউইকের সঙ্গে সৌদি শিবিরের উদযাপন

দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। সুনির্দিষ্টভাবে বলতে গেলে গেলবারের ফাইনালে আর্জেন্টিনার স্বপ্নভঙ্গ করা মারিও গোৎসার সেই গোলের পর ১৪৩২ দিন অতিবাহিত হয়েছে। আজ রাশিয়ার মস্কোতে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবলের নতুন অধ্যায়। লুঝনিকি স্টেডিয়ামে ২০১৮ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী খেলায় মুখোমুখি হচ্ছে আয়োজক রাশিয়া ও সৌদি আরব। ফিফা বিশ্বকাপের ইতিহাসে এবারই প্রথম এশিয়ার কোন দল ফুটবলের সবচেয়ে বড় এই আসরের উদ্বোধনী খেলায় অংশ নিচ্ছে।

সাম্প্রতিক ফর্ম দু’দলের কারোরই তেমন একটা ভালো যাচ্ছে না। গেল অক্টোবরে দক্ষিণ কোরিয়াকে হারানোর পর আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ ও প্রস্তুতি ম্যাচ মিলিয়ে সাতটি খেলার একটিতে জয়ের দেখা পায় নি রাশিয়া। অন্যদিকে নিজেদের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ম্যাচের তিনটিতেই টানা পরাজয়ের স্বাদ দিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে সৌদি আরবকে। অবশ্য, এই তিন ম্যাচেই তাদের প্রতিপক্ষ ছিল অপেক্ষাকৃত শক্তিশালী- ইতালি, পেরু ও বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানি।

লুঝনিকি স্টেডিয়ামে আজ তাই দু’দলেরই লক্ষ্য থাকবে জয় তুলে নেয়া। বিশ্বকাপের আসরে রাশিয়া সর্বশেষ জয় পেয়েছিল ২০০২ সালের আসরে। আর সৌদি আরব শেষবার বিশ্বকাপে জয়ের দেখা পায় ৯৪’এর যুক্তরাষ্ট্র আসরে।

প্রীতি ম্যাচগুলোতে সাম্প্রতিক ফর্মের কারণে সমালোচনায় বিদ্ধ হচ্ছে রুশ শিবির। সে কারণে আজকের ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে জয়ের ধারায় ফিরতে উন্মুখ আয়োজক দলটি। মস্কো থেকে বেশ দুরে নোভোগোর্স্ক শহরে কঠোর পরিশ্রম করছে রাশিয়ার বিশ্বকাপ স্কোয়াড।

অন্যদিকে, সৌদি আরব দলটি ফুটবলে নিজেদের ক্রমন্নোতি বিশ্বের সামনে তুল ধরতে চায় ভালো একটি খেলা উপহার দেয়ার মাধ্যমে। বোদ্ধারা বলছেন, শুরু থেকেই সতর্কতার সঙ্গে খেলবে সৌদি দল। এরপর পরিস্থিতি বুঝে ছক কষবেন দলের ম্যানেজার হুয়ান অ্যান্টোনিও পিজ্জি।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।