× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা
ঢাকা, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার

এক জয়ে পাল্টে গেছে দৃশ্যপট

রাশিয়া থেকে

সামন হোসেন মস্কো (রাশিয়া) থেকে | ১৯ জুন ২০১৮, মঙ্গলবার, ১২:৩০

রাশিয়ার ফুটবলের খুব একটা খবর রাখতেন না স্লাভিয়া মারমিচ। সাম্প্রতিক সময়ে দলের টানা হারে বিশ্বকাপ  নিয়েও আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছিলেন এই ভদ্র মহিলা। এমনকি বিশ্বকাপ নিয়ে ভয়ও কাজ করছিলো তার মনে, না জানি কি হয়? সৌদি আরবের সঙ্গে পাঁচ শূন্য গোলে এক জয়ে তার সেই ভয় দুর হয়েছে। এই রাশিয়াকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন স্লাভিয়া। স্লাভিয়ার মতো হাজার হাজার তরুণ-তরুণী রাশিয়াকে নিয়ে নতুন করে আশায় বুক বাধছেন। ফুটবলকে কেন্দ্র করেই পাল্টে গেছে রাশিয়ার রাজনৈতিক দৃশ্যপট। দু’দিন আগেও যারা ভ্লাদিমির পুতিনের  বিশ্বকাপের খরচ নিয়ে সমালোচনা করেছেন। তারাও সৌদি জয়ের পর বুদ হয়ে  গেছেন। তাকিয়ে আছেন মিশর ম্যাচের দিকে।
বিশ্বকাপ শুরুর আগে টানা সাত ম্যাচ হেরেছিলো রাশিয়া। প্রস্তুতি ম্যাচে  অস্ট্রিয়ার সঙ্গে ড্র করার পর হার মেনে ছিলো তুরস্ককের কাছে। দলের এমন হতশ্রী অবস্থায় রাশিয়াকে নিয়ে কোনো আশাই ছিলো না সমর্থকদের। তারাও এখন নকআউট পর্বের স্বপ্ন দেখছেন। উদ্বোধনী ম্যাচের আগেও বিশ্বকাপের খবর নিয়ে প্রশ্ন তুলে ছিলেন রাশিয়ার বিরোধী দলের নেতা অ্যালেক্সি নাভালনি। এ নিয়ে তিনি পুতিন বিরোধী আন্দোলনও শুরু করেছিলেন। তার বক্তব্য ছিলো সাধারণ রুশদের প্রায় ১৪ বিলিয়ন ইউরো খরচ করার কোনো মানে ছিলো না। রুশ প্রেসিডেন্টের ঘনিষ্ট কিছু ধনকুবের দিকে আঙ্গুল তুলে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ করেছিলেন অ্যালেক্সি। উল্লেখ্য, এবারের বিশ্বকাপে বিভিন্ন খাতে ১৩.২ বিলিয়ন ইউরো খরচ করেছে রুশ সরকার। যা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ১২০০ কোটি টাকা।
সেই অ্যালেক্সিও সৌদি আরবকে হারানোর পরও দলের দিকে তাকিয়ে আপাতত সকল নেতিবাচক কথা বন্ধ করে দলের সাফল্য কামনা করছেন। সৌদি আরবকে ৫-০ গোলে হারানোর পর অ্যালেক্সির মতো সাধারণ জনগণের প্রত্যাশাও দলের উপর বেড়ে গেছে। তবে, দলের প্রতি এই প্রত্যাশাকে বাড়তি না নেয়ার অনুরোধ করেছেন মক্সো ইউনিভার্সিটির লেকচারার ভালিচ। ইগোর আকিনফিভদের প্রতি অনুরোধ করেছেন। তারমতে, নিজেদের মধ্যে যতোই বিভেদ থাকুক না কেন আজ আমরা এই একটা জায়গাতে এক হয়ে গেছি। এই মুহুর্তে ফুটবলাররাই পারে সকলকে এক কাতারে সামিল করতে। সৌদি আরবকে হারানোর পর রাশিয়ান কোচকে ডেকে উৎসাহ যুগিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদির পুতিন। দলের টানা হারে যে পুতিন দলের খুব একটা খবর রাখতেন না, তিনি কিনা সৌদি ম্যাচের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার অনুরোধ করেছেন বাকী ম্যাচগুলোতে।
এদিকে রাশিয়ার কোচ স্তানিস্লাভ চেরিসভ দু:সময়ে তাদের পাশে থাকায়  দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচের আগে সেন্ট পিটারর্সবাগে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি প্রতিপক্ষ মিসরের মোহামেদ সালাহকে নিয়ে তার কোনো আলাদা পরিকল্পনা নেই বলে জানান তিনি। এর কারণ হিসেবে চেরসিভ বলেন, আমার খেলোয়াড়দের জানা আছে, কিভাবে সালাহ’র বিরুদ্ধে খেলতে হয় এবং কিভাবে লিভারপুলের এ তারকাকে মোকাবিলা করতে হবে। তবে সংবাদ সম্মেলনে সালাহ প্রসঙ্গে তিনি পরিস্কার বলেছেন, ‘আমি নির্দিষ্ট কোনো খেলোয়াড় নিয়ে আলাদা কিছু ভাবছি না। মিসরের পুরো দলটিই মাঠে আমাদের প্রতিপক্ষ। আমি সেভাবেই আমার পরিকল্পনা সাজাবো। আমার খেলোয়াড়রা তাদের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন।’
এ ম্যাচের আগে দুই দলের হয়েছে দুই রকম অভিজ্ঞতা। চতুর্মুখী সমালোচনার মধ্যে উদ্বোধনী ম্যাচে মাঠে নেমে সৌদি আরবকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে স্বাগতিকরা। আর সালাহবিহীন মিসর ১-০ গোলে হেরেছে উরুগুয়ের কাছে। আজ রাত নয়টায় সেন্ট পিটারর্সবাগে সালাহর মিশরের মুখোমুখি হবে রাশিয়া। আগামী ২৫শে জুন সামারা এরিনাতে গ্রুপের শেষ ম্যাচ খেলবে রাশিয়া।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর