ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০১৮, সোমবার

এক জয়ে পাল্টে গেছে দৃশ্যপট

সামন হোসেন মস্কো (রাশিয়া) থেকে | ২০ জুন ২০১৮, বুধবার, ৯:৪০

রাশিয়ার ফুটবলের খুব একটা খবর রাখতেন না স্লাভিয়া মারমিচ। সাম্প্রতিক সময়ে দলের টানা হারে বিশ্বকাপ নিয়েও আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছিলেন এই রুশ ভদ্র মহিলা। এমনকি বিশ্বকাপে নিয়ে ভয়ও কাজ করছিলো তার মনে, না জানি কি হয়? সৌদি আরবের সঙ্গে ৫-০ গোলের এক জয়ে তার সেই ভয় দূর হয়েছে। এই রাশিয়াকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন স্লাভিয়া। স্লাভিয়ার মতো হাজার হাজার নারী পুরুষ রাশিয়াকে নিয়ে নতুন করে আশায় বুক বাঁধছেন। ফুটবলকে কেন্দ্র করেই পাল্টে গেছে রাশিয়ার রাজনৈতিক দৃশ্যপটও। দু’দিন আগে যারা ভ্লাদিমির পুতিনের বিশ্বকাপের খরচ নিয়ে সমালোচনা করেছেন, তারাও সৌদি জয়ে বুদ হয়ে গেছেন। তাকিয়ে আছেন মিশর ম্যাচের দিকে।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে টানা সাত ম্যাচ হেরেছিলো রাশিয়া। প্রস্তুতি ম্যাচে অস্ট্রিয়ার সঙ্গে ড্র করার পর হার মেনেছিলো তুরস্কের কাছে। দলের এমন হতশ্রী অবস্থায় রাশিয়াকে নিয়ে কোনো আশাই ছিলো না জনগণের। তারাও এখন নকআউট পর্বের স্বপ্ন দেখছেন। উদ্বোধনী ম্যাচের আগেও বিশ্বকাপের খরচ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন রাশিয়ার বিরোধী দলের নেতা অ্যালেক্সি নাভালনি। এনিয়ে তিনি পুতিনবিরোধী আন্দোলনও শুরু করেছিলেন। তার বক্তব্য ছিলো সাধারণ রুশদের প্রায় ১৪ বিলিয়ন ইউরো খরচ করার কোনো মানে ছিলো না। রুশ প্রেসিডেন্টের ঘনিষ্ঠ কিছু ধনকুবের দিকে আঙুল তুলে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ করেছিলেন অ্যালেক্সি। উল্লেখ্য, এবারের বিশ্বকাপে বিভিন্ন খাতে ১৩.২ বিলিয়ন ইউরো খরচ করেছে রাশিয়া সরকার।

সেই অ্যালেক্সিও সৌদি আরবকে হারানোর পরও দলের দিকে তাকিয়ে আপাতত সকল নেতিবাচক কথা বন্ধ করে  দলের সাফল্য কামনা করছেন। সৌদি আরবকে ৫-০ গোলে হারানোর পর অ্যালেক্সির মতো সাধারণ জনগণের প্রত্যাশাও দলের উপর বেড়ে গেছে। তবে জনগণের এই প্রত্যাশাকে বাড়তি চাপ না নেয়ার অনুরোধ করেছেন মক্সো ইউনিভার্সিটির লেকচারার ভালিচ। ইগোর আকিনফিভদের প্রতি অনুরোধ করে তিনি বলেন, আমরা প্রত্যাশা করতেই পারি, এদিকে মনযোগ না দিয়ে তোমরা তোমাদের খেলাটা খেলো। তারমতে নিজেদের মধ্যে যতই বিভেদ থাকুক না কেন ফুটবলকে কেন্দ্র করে আমরা সবাই একটা জায়গাতে এক হয়ে গেছি। এই মুহূর্তে ফুটবলাররাই পারে সকলকে এক কাতারে শামিল করতে। সৌদি আরবকে হারানোর পর রাশিয়ান কোচকে ডেকে উৎসাহ যুগিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। দলের টানা হারে যে পুতিন দলের খুব একটা খবর রাখতেন না, তিনি কিনা সৌদি ম্যাচের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার অনুরোধ করেছেন বাকি ম্যাচগুলোতে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।