× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা
ঢাকা, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার

বিয়ার শপে লম্বা লাইন

রাশিয়া থেকে

সামন হোসেন মস্কো (রাশিয়া) থেকে | ২৪ জুন ২০১৮, রবিবার, ৯:৫৪

ম্যাচের চার-পাঁচ ঘণ্টা আগে থেকেই স্টেডিয়াম এলাকায় ঢুকতে শুরু করে দর্শক। স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে দেয়া হয় ম্যাচের ঘণ্টাখানিক আগে। এর আগে নানা কর্মকাণ্ডে ব্যস্ত থাকে ম্যাচ দেখতে আসা দর্শকরা। স্টেডিয়াম এলাকায় ঢুকতেই ছোট ছোট অনেক দোকান চোখে পড়বে। এরমধ্যে খাবার দোকানই বেশি। সবচেয়ে বেশি ভিড় দেখা যায় বিয়ারের দোকানগুলোতে। সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে বিয়ার কিনেন দর্শকরা। আছে বিভিন্ন ফ্যান গেমের ব্যবস্থা। গতকাল স্পার্তাক স্টেডিয়ামের বাইরে এমনই এক ফ্যান গেমে অংশ নিচ্ছে পোল্যান্ডের তরুণ আর ভেনিজুয়েলার তরুণী। শূন্যে ফুটবল ভাসিয়ে রাখার এই খেলায় পোল্যান্ডের তরুণকে হারিয়ে জয়ী হয় ভেনিজুয়েলার তরুণী।
কোম্পানির জন্য মানববন্ধন!
গ্রুপ পর্বে পানামাকে ৩-১ গোলে হারিয়ে খুব ভালো ভাবেই বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করেছে বেলজিয়াম। ওই ম্যচে দুই গোল করে সবার নজর কেড়েছেন লুকাকু। ম্যানেচস্টার ইউনাইটেডের এই তারকা যখন উড়ছেন, ঠিক তখনই সাইড বেঞ্চ গরম করছেন ভিনসেন্ট কোম্পানি। কোম্পানি একাদশে না থাকলেও তার ভক্তরা ঠিকই গ্যালারিতে বসে তার নাম ধরে গলা ফাটাচ্ছে। গ্যালারিতে এমনভাবে তারা দাঁড়িয়েছে, দেখে মনে হচ্ছে তারা মনে হয় কোম্পানির জন্য মানববন্ধন করছে।
দুই হাত দূরে বেলজিয়াম
আগের তিন ম্যাচে সিটের সঙ্গে ডেস্ক ছিলো। যেখানে বসে আরামে কাজ করা গেলো। কিন্তু গতকাল স্পার্তাক স্টেডিয়ামে তিউনিশিয়া-বেলজিয়াম ম্যাচে সিট মিললেও ডেস্ক ছিলো না। সিটটি ছিলো বেলজিয়ামের খেলোয়াড় স্ট্যান্ডের ঠিক পেছনে। আমার সিটের সামনেই ছিলো লুকাকু-কোম্পানিরা।
নিরাপত্তার নামে বাড়াবাড়ি নেই
আমাদের দেশের আন্তর্জাতিক ম্যাচ মানেই নিরাপত্তার নামে বাড়ি। বিশ্বকাপ উপলক্ষে পুরো রাশিয়াই কঠোর নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে দিয়েছে রুশ সরকার। কিন্তু কোথাও নিরাপত্তার নামে বাড়াবাড়ি চোখে পড়েনি। স্পার্তাক স্টেডিয়ামে হাত দূরত্বে খেলোয়াড়ের টেন্ড। দর্শক চাইলে যে কোনো মুহূর্তে লাফ দিয়ে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে পারে। তারপরও নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশ বাড়তি চাপ প্রয়োগ করে দর্শকদের ম্যাচ দেখায় বিঘ্ন ঘটায়নি। দর্শকরাও কোনো প্রকার বাড়াবাড়ি করেননি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর