× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২২ নভেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার

‘স্পেনের ফুটবল সঠিক পথেই আছে’

রাশিয়া থেকে

স্পোর্টস রিপোর্টার, মস্কো (রাশিয়া) থেকে | ৬ জুলাই ২০১৮, শুক্রবার, ৯:৫৪

মস্কোর রেড স্কয়ারেই বিশ্বকাপ নিয়ে যত উন্মাদনা। বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ফুটবল প্রেমীদের আকর্ষণের কেন্দ্র বিন্দু এই রেড স্কয়ার। এখানে প্রতিদিনই ফুটবলপ্রেমীদের জন্য কোনো না কোনো আয়োজন থাকে। হাজির হন কোনো না কোনো সাবেক ফুটবল তারকা। গতকাল এসেছিলেন লুইস গার্সিয়া। স্পেন জাতীয় দলের সাবেক এই তারকা ফুটবলার কথা বলেছেন মিডিয়ার সঙ্গে। সেখানে উঠে এসেছে এবারের বিশ্বকাপের নানা প্রসঙ্গ। কথা বলেছেন নিজ দেশের গ্রুপ পর্বে বাদ পরা নিয়ে।
গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিলেও স্পেনের ফুটবল সঠিক পথেই আছে বলে দাবি তার।

হঠাৎ করেই মস্কোর তাপমাত্রা নেমে এসেছে ১৫ এর ঘরে। গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হওয়াতে মাঘ মাসের আবহাওয়া বিরাজ করছে এখানে। বৃষ্টি ও ঠাণ্ডার কারণে দুপুর দুইটায় হাজির হওয়ার কথা থাকলেও প্রায় আধাঘণ্টা খানেক পর রেড স্কয়ারে হাজির হন লুইস গার্সিয়া। শুরুতে বাচ্চাদের সঙ্গে একটি ফ্যান গেমে অংশ নেন সাবেক এই বার্সা তারকা। বাচ্চাদের খেলা শেষেই অটোগ্রাফ শিকারিরা ঘিরে ধরেন জার্সিয়াকে। যদিও সে সময়ে ভক্তদের দাবি না মিটিয়ে মিডিয়ার মুখোমুখি হন স্পেন জাতীয় দলের হয়ে ২০ ম্যাচে ৪ গোল করা এই অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার। শুরুতেই নিজ দেশের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায়ের প্রসঙ্গে বলেন, স্পেন বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরের আসরে প্রথম রাউন্ড, এবার দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বাদ পড়লো। বাদ পড়লেও আমি মনে করি স্প্যানিশ ফুটবলাররা মেধাবী তারা সঠিক পথেই আছে।
এবারের বিশ্বকাপে নতুন চ্যাম্পিয়ন পাওয়া যাবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে এই স্প্যানিশ তারকা বলেন, নতুন কোনো চ্যাম্পিয়নও পেতে পারে এবার বিশ্বকাপ। বেলজিয়াম সেক্ষেত্রে বড় নাম। তবে সাবেক চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স ও ব্রাজিলকেও হিসেবে রাখতে হচ্ছে। তারা যথেষ্ট ভালো খেলছে। ইংল্যান্ডের খেলাও আমার কাছে খারাপ লাগেনি। তাদের নামও তালিকা থেকে বাদ দেয়া যাচ্ছে না। এবার বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো যুক্ত হয়েছে ভিএআর প্রযুক্তি। যার মাধ্যমে রেফারি চাইলে তার সিদ্ধান্ত যাচাই করে নিতে পারেন এই প্রযুক্তির মাধ্যমে। দলগুলোও চাইলে রেফারির দেয়া সিদ্ধান্তের পূর্ণ বিবেচনার সুযোগ পাচ্ছে ভিএআর’এর মাধ্যমে। ফুটবলে যুক্ত হওয়া এ ভিএআর নিয়ে গার্সিয়া বলেন, ভিএআর নিয়ে মন্তব্য করা কঠিনই। তারপরও বলবো এই প্রযুক্তি অনেক কিছু সহজেই সমাধান দিচ্ছে। সামনের দিনগুলোতে এই প্রযুক্তির দুর্বলতাগুলো আরো কেটে যাবে। বিশ্বকাপে অন্য দলগুলোর পারফরমেন্স নিয়ে তিনি বলেন,  এই বিশ্বকাপে কোনো দলকে খাটো করে দেখার সুযোগ নেই।

সবাই দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করছে। সুইডেন ইতালির মতো চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে বিশ্বকাপে উঠে এখন শেষ আটে। বিশ্বকাপ শুরুর দু’দিন আগে কোচ বিদায়ে স্পেনের খেলায় কোনো প্রভাব পড়েছে কিনা জানতে চাইলে এই সাবেক তারকা বলেন, হঠাৎ করে স্পেনের কোচ বিদায়ে দলে প্রভাব পড়েনি, এটা বলা ভুল হবো। প্রাথমিক পর্যায়ে প্রভাব ছিল তা পরবর্তীতে কেটেছে। দলের ট্যাকটিস বা ফরমেশন ঠিক ছিলো দাবি করে তিনি বলেন, ট্যাকটিস বা ফরমেশন নিয়ে বিশেষ কিছু বলার নেই। ৪-২-৩-১,৪-৩-৩ সবই ম্যাচের প্রেক্ষাপটে তৈরি। ম্যাচে সফল হলে ট্যাকটিস সফল। জার্মানদের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায়ে সবচেয়ে অবাক হয়েছেন জানিয়ে গার্সিয়া বলেন, জার্মানি বড় আসরগুলোতে সব সময় ভালো করে। প্রথম রাউন্ড থেকে তাদের বিদায়টা আসলেই বড় আকস্মিকতা। তারমতে রোনালদো এবারের টুর্নামেন্টে ভালো খেলেছে। নেইমারও ধীরে ধীরে পারফরম্যান্সের উন্নতি করছে। গোল্ডেন বলের লড়াইয়ে অন্যদের সঙ্গে লড়াইয়ে তারাও থাকবেন।

দ্বিতীয় রাউন্ডে বেশ কয়েকটি ম্যাচ টাইব্রেকার পর্যন্ত গড়িয়েছে। গোলরক্ষক নকআউট পর্বে একটা বড় ভূমিকা রাখবে। বাংলাদেশের বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদের অনেক ভক্ত আছে জানতে পেরে গার্সিয়া ভবিষ্যতে তাদের এই সাপোর্ট অব্যাহত রাখবে এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। উল্লেখ্য, ১৯৯৮ সালে বার্সেলোনা ‘বি’ দল দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা গার্সিয়া বার্সেলোনার মূল দল ছাড়াও খেলেছেন অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ ও ইংলিশ ক্লাব লিভারপুরে। ক্যারিয়ারের শেষ দিকে ভারতীয় প্রিমিয়ার লীগে অ্যাটলেটিকো কলকাতার হয়েও মাঠ মাতিয়েছেন এই তারকা ফুটবলার। স্পেন জাতীয় দলে খেলেছেন ২০০৫-২০০৮ সাল পর্যন্ত। বর্তমানে ফিফার একটি প্রজেক্টে কাজ করছেন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর