× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২১ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার

৯৮’র কীর্তি ছাড়িয়ে যেতে চায় ক্রোয়েশিয়া

ফিফা বিশ্বকাপ-২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক | ৯ জুলাই ২০১৮, সোমবার, ১০:০৮

ডেভর সুকার, জোনিমির বোবানদের হাত ধরে ১৯৯৮ বিশ্বকাপে শেষবার সেমিফাইনাল খেলে ক্রোয়েশিয়া। ক্রোয়েশিয়ার বর্তমান প্রজন্মের সামনে পূর্বসূরিদের কীর্তি ছাড়িয়ে যাওয়ার হাতছানি। নিজেদের বিশ্বকাপ ইতিহাসে প্রথমবার ফাইনালে ওঠার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী অধিনায়ক লুকা মদ্রিচ। সেমিফাইনালে ইংল্যান্ড বাধা অতিক্রম করতে হবে ক্রোয়েশিয়াকে। বুধবার মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে রাত ১২টায় মুখোমুখি হবে দুই দল। শনিবার রাতের শ্বাসরুদ্ধকর কোয়ার্টার ফাইনালে স্বাগতিক রাশিয়াকে টাইব্রেকারে হারিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট কাটে ক্রোয়েশিয়া। দ্বিতীয় রাউন্ডে ডেনমার্কের বিপক্ষেও টাইব্রেকারে জয় দেখে তারা। ম্যাচসেরা মদ্রিচ বলেন, ‘২০ বছর পর বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠতে পেরে আমরা গর্বিত।
আমরা কঠিন পথের মধ্য দিয়ে গেছি। বিগত আসরগুলোতে ভাগ্য আমাদের সহায় ছিল না। আশা করছি আমরা ৯৮’র কীর্তি ছাড়িয়ে যেতে পারবো। আমাদের দলটা অসাধারণ। কোচিং স্টাফ দুর্দান্ত। আরো এক ধাপ এগিয়ে যেতে আমি আত্মবিশ্বাসী।’ ১-১ সমতায় ৯০ মিনিটের খেলা শেষে অতিরিক্ত সময়ে দু’দলই আরেকটি গোল পায়। গোল না করলেও মাঝমাঠে দারুণ পারফরম্যান্সে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন মদ্রিচ। গ্রুপ পর্বে আর্জেন্টিনা ও নাইজেরিয়ার বিপক্ষে গোল করেন রিয়াল মাদ্রিদে খেলা এই তারকা মিডফিল্ডার।
জোনিমির বোবানের নেতৃত্বে তৃতীয় স্থান নিয়ে ১৯৯৮ বিশ্বকাপ শেষ করে ক্রোয়েশিয়া। ওই আসরে সর্বোচ্চ ৬ গোল করে গোল্ডেন বুট পুরস্কার জেতেন কিংবদন্তির ক্রোয়াট স্ট্রাইকার ডেভর সুকার। সেমিফাইনালে স্বাগতিক ফ্রান্সের বিপক্ষে সুকারের গোলে এগিয়ে থেকেও ২-১ ব্যবধানে হার দেখে ক্রোয়েশিয়া। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ২-১ গোলে জেতা তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে জয়সূচক গোল করেন সুকার। অপর গোলটি করেন মাঝমাঠের অপর তারকা রবার্ট প্রোসেনেকি।
১৯৯০ বিশ্বকাপের পর প্রথমবার সেমিফাইনালে খেলছে ইংল্যান্ড। কোয়ার্টার ফাইনালে সুইডেনকে ২-০ গোলে হারায় অধিনায়ক হ্যারি কেইনের দল। ৬৬’র চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে কঠিন এক ম্যাচই প্রত্যাশা করছেন মদ্রিচ। তিনি বলেন, ‘ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা খুবই কঠিন ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচ প্রত্যাশা করছি। বিশ্বকাপের প্রতিটি ম্যাচই কঠিন। আমাদের পুরো মনোযোগ ইংল্যান্ড ম্যাচের দিকে। মুহূর্তগুলো উপভোগ করতে হবে। আমি নিশ্চিত আমরা ভালো প্রস্তুতি নিয়ে নামতে পারবো। সুইডেনের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের জয় দেখেছি। তারা সেটপিসে কতটা ভালো সেটি পর্যালোচনা করেছি। রাশিয়ার বিপক্ষে শেষদিকে সেটপিস থেকে একটি গোল হজম করতে হয়। এদিকটায় আমাদের আরো উন্নতি করতে হবে।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর