× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২১ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার

পাকিস্তানে নির্বাচনী সমাবেশে বোমা হামলা, নিহত ২০

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১২ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:০৬

পাকিস্তানে আওয়ামী ন্যাশনাল পার্টির (এএনপি) নির্বাচনী সমাবেশে বোমা হামলা চালিয়েছে তালেবান জঙ্গিরা। এতে দলটির প্রভাবশালী নেতা হারুন বিলারসহ কমপক্ষে ২০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ৬৯ জন। মঙ্গলবার দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর পেশোয়ারে এ হামলা চালানো হয়। পরে হামলার দায় স্বীকার করে বিবৃতি দিয়েছে তালেবান। এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা।

খবরে বলা হয়, পাকিস্তানের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী এএনপি। মঙ্গলবার দলটি পেশোয়ারে নির্বাচনী সমাবেশের আয়োজন করে।
সেখানে জড়ো হওয়া নেতাকর্মীদের ওপর অকস্মাৎ বোমা হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। এতে দলটির প্রাদেশিক পরিষদের প্রার্থী বিলার হারুন সহ অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছেন। স্থানীয় পুলিশ প্রধান জানিয়েছেন, বোমা হামলায় অর্ধশতেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছেন। কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় নিহতের সংখ্যা আরো বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। হামলার সময় বিলার হারুন সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য দিচ্ছিলেন। পুলিশ কর্মকর্তা শাফকাত মালিক বলেন, প্রাথমিক তদন্ত অনুযায়ী এটা ছিল একটি আত্মঘাতী হামলা। হামলার মূল লক্ষ্য ছিলেন বিলার হারুন।  বিস্ফোরণের পরপরই হামলার দায় স্বীকার করেছে তালেবান জঙ্গিরা।

স্থানীয় একজন সাংবাদিক বলেন, পেশোয়ারের একটি অপ্রশস্ত সড়কে এএনপি’র সমাবেশে জড়ো হন নেতাকর্মীরা। দলটির নেতা বিলার হারুন সমাবেশস্থলে পৌঁছার পরপরই সেখানে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। সমাবেশস্থলে পৌঁছে তিনি গাড়ি থেকে নামা মাত্রই হামলাকারীরা বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে বোঝা যায়, আত্মঘাতী হামলাকারী বিলারের খুব কাছেই অবস্থান নিয়েছিল।  নিহত বিলার হারুনের পরিবার পেশোয়ারে বেশ প্রভাবশালী। তার বাবা বশির হারুনও এএনপির  নেতা ছিলেন। ২০১২ সালে এক বোমা হামলায় নিহত হন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর