× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা
ঢাকা, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বুধবার

রায়পুরায় ১০ হাজার টাকার জন্য শিশু খুন

বাংলারজমিন

নরসিংদী প্রতিনিধি | ১২ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:২৪

নরসিংদীর রায়পুরায় ১০ হাজার টাকায় জন্য সাত বছরের শিশুকে খুন করা হয়। প্রবাসী সুজন মিয়ার ডিপোজিট করে রাখা টাকার প্রতি লোভ থেকেই তার শিশুপুত্র মামুনকে অপহরণ করা হয়েছিল। মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে ক্ষোভে সাত বছরের মামুন মিয়াকে দুইদিন অভুক্ত রেখে মুখে স্কচটেপ ও গলায় রশি পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এই পরিকল্পনায় ছিলেন সুজন মিয়ার জ্যাঠাতো ভাই জয়নাল মাস্টার। তিনি তার ছেলে আরমান, নাতি জিদান আর ভাড়া করা সন্ত্রাসী নাসির এর মাধ্যমে এ হত্যাকাণ্ড বাস্তবায়ন করেন। আর হত্যাকাণ্ড বাস্তবায়ন করতে কিলারের সঙ্গে ১০ হাজার টাকা রফাদফা হয়। গতকাল দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন। পুলিশ জানায়, রায়পুরা উপজেলার হাসিমপুর এলাকার সুজন মিয়ার ছোট ছেলে মামুন মিয়া গত ২০শে জুন বিকালে বাড়ির সামনের রাস্তায় খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। পরে দফায় দফায় বিভিন্ন কৌশলে তার পরিবারের নিকট মুক্তিপণ বাবদ ৩০ লাখ টাকা দাবি করা হয়। এরই মধ্যে নিখোঁজের তিনদিন পর প্রতিবেশী জয়নাল মাস্টারের তিন তলা বাড়ির ছাদ থেকে হাত-পা বাঁধা ও গলায় গামছা পেঁচানো অবস্থায় মামুনের লাশ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে রায়পুরা থানায় মামলা করেন। পরে মামলাটির তদন্ত ভার থানা থেকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশে স্থানান্তর করা হয়। হত্যায় জড়িত সন্দেহে প্রযুক্তির সহায়তায় জয়নাল মাস্টার, তার ছেলে আরমানকে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ। পরে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাজনগর এলাকার নাসির মিয়াকে গ্রেপ্তার করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর