× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার

ধকরিমগঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ থেকে | ১২ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:২৫

করিমগঞ্জে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর ফাঁসিতে ঝুলে স্বামীর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। বুধবার সকালে উপজেলার নিয়ামতপুর ইউনিয়নের কাজলাহাটি দেওপুর গ্রামের নিজ ঘর থেকে স্বামী-স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় স্বামী তানভীর হোসেন সম্রাট (২৬) এর লাশ ঘরের আড়ায় ঝুলন্ত অবস্থায় এবং স্ত্রী শোভা আক্তার (১৮) এর লাশ বিছানায় পড়ে থাকা অবস্থায় পাওয়া যায়। তানভীর হোসেন সম্রাট কাজলাহাটি দেওপুর গ্রামের জহুর উদ্দিনের ছেলে এবং শোভা আক্তার পার্শ্ববর্তী ইটনা উপজেলার শিমুলবাঁক গ্রামের আবদুল হকের মেয়ে। প্রায় সাত মাস আগে সম্রাট ও শোভার বিয়ে হয়েছিল এবং শোভা সাড়ে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকালে সম্রাটের ঘরে কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে স্বজনরা ঘরের ভেন্টিলেটর দিয়ে দেখতে পায়, ঘরের আড়ায় সম্রাটের লাশ ঝুলছে। স্বজনরা দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে বিছানায় সম্রাটের স্ত্রী শোভা আক্তারের নিথর দেহও পড়ে থাকতে দেখে। ধারণা করা হচ্ছে, শোভাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর সম্রাট নিজেও ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন।
করিমগঞ্জ থানায় খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

করিমগঞ্জ থানার ওসি মুজিবুর রহমান ওসি জানিয়েছেন, সম্রাট সম্পর্কে দুই রকমের তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। তিনি এক সময় মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। চিকিৎসা করে তাকে সুস্থ করা হয়েছিল। আবার তিনি কিছুটা মাদকাসক্ত ছিলেন বলেও জানা গেছে। প্রাথমিক আলামতে বোঝা যাচ্ছে, একটি হত্যা অপরটি আত্মহত্যার ঘটনা। তবে ময়নাতদন্ত হওয়ার পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর