× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার

বাহুবলে এএসআই ক্লোজড

বাংলারজমিন

বাহুবল (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি | ১২ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:২৯

বাহুবলে পুলিশের মোটরসাইকেল ইয়াবা ব্যবসার কাজে ব্যবহারের অভিযোগে এএসআই কবির নামে এক কর্মকর্তাকে ক্লোজ করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালেই তাকে হবিগঞ্জ পুলিশ লাইনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বাহুবল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মাসুক আলী। তার মোটরসাইকেলে ইয়াবা ট্যাবলেট পাচারকালে উপজেলার পশ্চিম জয়পুর গ্রামের লোকজন মঙ্গলবার সালাউদ্দিন নামে এক যুবককে আটক করে। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ৩টায় উপজেলার পশ্চিম জয়পুর গ্রামে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত মাদক ব্যবসায়ী মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার সুরমা ভ্যালি এলাকার কণা মিয়ার ছেলে।
সূত্র জানায়, মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার সুরমা ভ্যালি এলাকার বাসিন্দা কণা মিয়ার পুত্র সালাউদ্দিন (২২) গত দু’বছর যাবৎ বাহুবল উপজেলার সাতপাড়িয়া গ্রামের তাহির মিয়ার ডেন্ডিং ওয়ার্কশপে কাজ করছিল। সেখানে কাজের পাশাপাশি পুলিশের সঙ্গে হাত মিলিয়ে সে দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। মঙ্গলবার দুপুরে বাহুবল মডেল থানা পুলিশের এএসআই কবিরের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল নিয়ে সালাউদ্দিন পশ্চিম জয়পুর গ্রামে ইয়াবা বিক্রয় করতে এলে গ্রামবাসী তাকে ৫ পিস ইয়াবাসহ আটক করে।
আটককৃত সালাউদ্দিন এলাকাবাসীকে জানায়, অনেক দিন যাবৎ এএসআই কবিরের সঙ্গে মাদক ব্যবসার লেনদেন করে আসছিল। ওইদিনও কবির তাকে পশ্চিম জয়পুর গ্রামের ইয়াবা ব্যবসায়ী শাহিন মিয়ার কাছে ইয়াবা পৌঁছে দিয়ে টাকা আনতে পাঠায়। ইয়াবা দিয়ে আসার পথে জনতা তাকে আটক করে বলে সে দাবি করে। বাহুবল মডেল থানার ওসি মাসুক আলী জানান, উক্ত ঘটনার সম্পৃক্ততার অভিযোগে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এএসআই কবিরকে মঙ্গলবার রাতে ক্লোজ করেন। বুধবার তাকে হবিগঞ্জ পুলিশ লাইনস-এ একীভূত করা হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর