ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০১৮, সোমবার

‘বেলজিয়ামের হার ফুটবলের জন্য লজ্জার’

স্পোর্টস ডেস্ক | ১২ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:৩৮

ফ্রান্সের রক্ষণাত্মক ফুটবলকে কাঠগড়ায় তুলেছেন বেলজিয়ান গোলরক্ষক থিবো কুরতোয়া। ফ্রান্স ‘অ্যান্টি ফুটবল’ খেলেছে বলে অভিযোগ তার। কুরতোয়ার দাবি বেলজিয়ামের হার ফুটবলের জন্য লজ্জার। পুরো ম্যাচে আধিপত্য দেখিয়েও ১-০ গোলে হেরে বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেয় বেলজিয়াম। ম্যাচের ৫১ মিনিটে কর্নার থেকে স্যামুয়েল উমতিতির হেড ফলাফল নির্ধারণ করে দেয়। মঙ্গলবার রাতে সেইন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামে ফ্রান্সের রক্ষণ দেয়াল আর ভাঙতে পারেননি হ্যাজার্ড-ডি ব্রুইনারা। কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলের বিপক্ষে ২-১ গোলে জেতা ম্যাচে দুর্দান্ত সব সেভ করে ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হন কুরতোয়া। ফ্রান্সের বিপক্ষে হারটা পীড়া দিচ্ছে তাকে। নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে প্রথমবার ফাইনালে ওঠার অপেক্ষাটা দীর্ঘায়িত হলো বেলজিয়ামের। কুরতোয়া বলেন, ‘আমরা এমন কোনো দলের কাছে হারিনি যারা আমাদের চেয়ে ভালো। এটা হতাশার ম্যাচ। বেলজিয়ামের জিততে না পারাটা ফুটবলের জন্য লজ্জার। ফ্রান্স তো খেলেইনি। তারা শুধু রক্ষণ সামলেছে। ১১ জন খেলোয়াড় নিয়ে ৪০ মিটারের মধ্যে বেলজিয়ামের আক্রমণগুলো ঠেকিয়ে গেছে। উরুগুয়ের বিপক্ষে (কোয়ার্টার ফাইনাল) তারা ফ্রি-কিক ও গোলরক্ষকের ভুলে জিতেছে। আমাদের বিপক্ষে জিতলো কর্নার থেকে পাওয়া গোলে।’

কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলের কাছে হারলেও তা মেনে নিতেন কুরতোয়া। ফ্রান্সের বিপক্ষে হারের পর এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, ‘আমি ব্রাজিলের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে গেলেও তা মেনে নিতাম। তারা অন্তত ফুটবল খেলতে চেয়েছে। ফ্রান্স খেলেছে সম্পূর্ণ বিরুদ্ধ (অ্যান্টি) ফুটবল।’ ফ্রান্স কোচ দিদিয়ের দেশমের কৌশলের কাছে হেরে গেছেন বেলজিয়ামের স্প্যানিয়ার্ড কোচ রবার্তো মার্টিনেজ। রক্ষণ ঠিক রেকে কাউন্টার অ্যাটাকনির্ভর ফুটবলে বাজিমাত করেন দেশম। মাত্র ৩৬ শতাংশ বল দখলে থাকে ৯৮’র চ্যাম্পিয়নদের। বলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ফ্রান্সের ডিফেন্স ব্যতিব্যস্ত করে রাখলেও গোলমুখে বেশি শট নিতে পারেনি মার্টিনেজের শিষ্যরা। এই পরিসংখ্যানে কুরতোয়ার কথা ভুল প্রমাণিত হতে পারে। বেলজিয়ামের গোলমুখ তাক করে মোট ১৯টি শট নেন এমবাপ্পে-গ্রিজম্যানরা। তবে সরাসরি পোস্টে থাকে ৩টি শট। অন্যদিকে ৯টি শট নেয় বেলজিয়াম। যার তিনটি ছিল সরাসরি গোলমুখে।

‘ফ্রান্সের হয়ে জয়ের চেয়ে বেলজিয়ামের হয়ে হার শ্রেয়’
ফ্রান্সের রক্ষণাত্মক কৌশলের সমালোচনা করেন বেলজিয়ান অধিনায়ক ইডেন হ্যাজার্ডও। হ্যাজার্ড বলেন, ‘আমি এই ম্যাচে ফ্রান্সের হয়ে জয়ের চেয়ে বেলজিয়ামের হয়ে হার পছন্দ করবো। কিন্তু তারা শক্তভাবে ডিফেন্স করেছে এবং তা ছিল খুবই কার্যকরী। আমরা তাদের দুর্বল দিক খুঁজে পাইনি। গোল করার জন্য ক্ষণিকের জাদুকরি মুহূর্ত সেখানে ছিল না। আমরা চমৎকার বেলজিয়াম দল দেখেছি। এমন প্রতিপক্ষের কাছে হেরেছি যারা রক্ষণে আমাদের চেয়ে ভালো। আমাদের দলটা কতটা ভালো তা আমরা প্রদর্শন করেছি। দলীয় অর্জন নিয়ে আমরা গর্ব করতে পারি। অধিনায়ক হিসেবে এই দলটার অংশ হতে পেরে আমি খুশি।’

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।