× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার

‘রেফারিই হারিয়েছেন ইংল্যান্ডকে’

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১২ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১১:৪২

সব দোষ ওই রেফারি কুনিত কাকির। পক্ষপাতিত্ব করে তিনিই ইংল্যান্ডকে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় করেছেন। ক্রোয়েশিয়ার কাছে ২-১ গোলে হেরে যাওয়ার পর রেফারিকে এভাবেই আক্রমণ করে কথা বলছেন ইংলিশ ভক্তরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই তুরস্কের এই রেফারির পারফরমেন্সকে বিব্রতকর বলে আখ্যায়িত করেছেন। তারা ফিফার কাছে এ বিষয়ে তদন্ত দাবি করেছেন। কেউ কেউ ওই রেফারিকে অবসরে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। আবার কেউ কেউ ক্রোয়েশিয়ার খেলোয়ারদের টার্গেট করে কথা বলেছেন। তারা মনে করেন, ক্রোয়েশিয়ার খেলোয়াররা খেলায় সময়ের অপচয় করেছেন। খেলার দ্বিতীয়ার্ধে ক্রোয়েশিয়া যখন সমতাসুচক গোল করে তাকে স্বীকৃতি দেয়ার জন্যও রেফারি কাকিরের সমালোচনা করেছেন ইংলিশ ভক্তরা। তাদের যুুক্তি এ গোলটির আগে ইংল্যান্ডের পক্ষে একটি ফাউল ধরা উচিত ছিল। একজন টুইটারে লিখেছেন, ওই রেফারির আসলে কোনো লজ্জা নেই। একজন রেফারির কাছ থেকে যে পারফরমেন্স পাওয়ার কথা সেক্ষেত্রে তিনি সবচেয়ে বাজে দেখিয়েছেন। এত বাজে পারফরমেন্স আমি বিশ্বকাপে দেখি নি। আরেকজন লিখেছেন, এমন রেফারিং সবচেয়ে বেশি প্রশ্নবিদ্ধ। তিনি ইংল্যান্ডকে কিছুই দেন নি। ফাউল হওয়া সত্ত্বেও আমরা কোনো ফাউল পাই নি। রেফারি ক্রোয়েশিয়াকে নয়, আমাদেরকে পরাজিত করেছেন। আরো একজন লিখেছেন, কাকির কুনিত একক হাতে বিশ্বকাপের খেলাটাকে ধ্বংস করে দিয়েছেন। পুরো খেলায় তার পারফরমেন্স ছিল সবচেয়ে বাজে। আবার ফিফা কর্মকর্তাদেরও ঘায়েল করে টুইট করা হয়েছে। একজন লিখেছেন, ফিফা তোমরা যা চেয়েছিল তা তো করেছই। একজন রেফারিকে বেছে নেয়া হয়েছে, যিনি ইংল্যান্ডকে ঘৃণা করেন এবং পুরোপরি পক্ষপাতী। আরেকজন লিখেছেন, এটা পরিষ্কার যে, ফিফা বিশ্বকাপের রেফারিরা আর সুষ্ঠু খেলা উপহার দেয়ায় আগ্রহী নন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
নাঈমুর রহমান
১২ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১:৪২

রেফারির ভুলেই ইংল্যান্ড ফাইনালে যেতে পারেনি।এমন একটি গুরুত্বপূর্ন ম্যাচে এরকম রেফারি রাখা ঠিক হয়নি।

অন্যান্য খবর