ঢাকা, ১৬ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার

ইসরাইলের হামলায় দুই ফিলিস্তিনি নিহত

মানবজমিন ডেস্ক | ৮ আগস্ট ২০১৮, বুধবার, ১১:২৯

গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাসের দুই সদস্য নিহত হয়েছেন। গাজা উপত্যকার উত্তরে বেইত লাহিয়া অঞ্চলে তাদের ওপর গুলিবর্ষণ করে ইসরায়েলি সেনারা। এসময় অন্তত ছয় ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হন। এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা ও হারেৎস।
খবরে বলা হয়, গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলে হামাসের এক স্থাপনায় হামলা চালায় ইসরাইল। এতে ওই দুই ফিলিস্তিনি নিহত হন। ইসরায়েলি বাহিনী ও হামাসের সামরিক শাখা এজেদিন আল কাসেম ব্রিগেড হামলার খবর নিশ্চিত করেছে। হামাস বলেছে, তাদের নিহত দুই সদস্যের নাম হলো আহমেদ মারজুন ও আব্দেল হাফেজ আল সিলাওয়ি। দু’জনেরই বয়স ২৩ বছর। হামলার বিষয়ে ইসরাইলের সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে বলেছে, সীমান্তবর্তী উত্তর গাজার একটি হামাস ঘাটি থেকে ইসরাইলের সেনাদের ওপর গুলিবর্ষণের পাল্টা জবাবে তারাও গুলি ছুড়েছে। ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ বলেছে, এটা ছিল ড্রোন হামলা। আর ইসরাইলের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তারা ট্যাংক থেকে গুলিবর্ষণ করেছে। ইসরাইলের প্রকাশ করা এক ভিডিওতে দেখা গেছে, তাদের ট্যাংকগুলো গাজা উপত্যকার দিকে তাক করা রয়েছে। ইসরাইল বলেছে, তারা ইসরাইলের ওপর যে কোন হামলা মোকাবেলা করতে প্রস্তুত। বর্তমানে গাজা উপত্যকায় যা কিছু ঘটছে  তার জন্য হামাসয়ে দায়ী করেছে তারা।
প্রসঙ্গত, বর্তমানে মিসরের মধ্যস্থতায় হামাস ও ইসরাইলের মধ্যে যুদ্ধবিরতির জন্য একটি সমঝোতার প্রচেষ্টা চলছে। এমন সময়ে এই হামলা চুক্তিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মিসরের উত্থাপন করার ওই প্রস্তাবটিতে হামাস ও ফাতাহর মধ্যে সংঘাতের অবসান ঘটানোকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ইসরাইলের সঙ্গে কারাবন্দী ও সেনাদের দেহ বিনিময়ের কথা বলা হয়েছে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।


kazi

৮ আগস্ট ২০১৮, বুধবার, ১:২৯

এদের দুর্ভাগ্য এরা ফিলিস্তিনে জন্ম নিয়েছিল। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন। ) যে দেশের পাশে আছে হায়না পশু।