× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, শনিবার
ট্রাফিক সপ্তাহ

নারায়ণগঞ্জে ৪ দিনে ১৬৭৪ মামলা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে | ১০ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার, ৮:০৫

বিশেষ ট্রাফিক সপ্তাহে নারায়ণগঞ্জে চার দিনে বিভিন্ন যানবাহনের বিরুদ্ধে ১ হাজার ৬৭৪টি মামলা হয়েছে। বুধবার বিকালে জেলা ট্রাফিক বিভাগ এই তথ্য নিশ্চিত করেন। এদিকে, ট্রাফিক সপ্তাহে জেলা পুলিশ ও ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে  স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করছে সরকারি তেলারাম কলেজ ও নারায়ণগঞ্জ কলেজের মোট ৭০ জন রোভার স্কাউট ও গার্ল গাইড সদস্যরা। রোববার সকাল থেকে জেলার বিভিন্ন সড়কে যানজট নিরসনে দায়িত্ব পালন করেন তারা।

ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণসহ লাইসেন্স চেক, সিটবেল্ট ও হেলমেট পরিধানের উপর গুরুত্ব দিচ্ছেন তারা। যাদের কাগজপত্র কিংবা অন্য কোনো ত্রুটি পাওয়া যাচ্ছে তাদের সঙ্গে সঙ্গে মামলা দিয়ে দেয়া হচ্ছে। নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক বিভাগ জানান, ট্রাফিক সপ্তাহের প্রথম দিন, রোববার ৪৯৮, দ্বিতীয় দিন ৪৮৬, তৃতীয় দিন ৪২৭ ও চতুর্থ দিন বুধবার বিকাল ৬টা পর্যন্ত ২৬৩টি মামলা হয়েছে বিভিন্ন যানবাহনের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) মো. শরফুদ্দিন জানান, ‘উপর থেকে নির্দেশ আছে, কাউকে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। কোনো তদবির চলবে না।
কোনো অনিয়ম থাকলে কিংবা গাড়ির কোনো কাগজপত্র না থাকলে আইন অনুযায়ী মামলা দিয়ে দেয়া হচ্ছে। লাইসেন্স, সিট বেল্ট, হেলমেট না পরা এসবের দিকে বেশি জোর দেয়া হচ্ছে।’ তিনি আরো জানান, ‘জেলার বিভিন্ন পয়েন্টে কাজ করছি আমরা। ট্রাফিক সপ্তাহ শেষ হলেও আমাদের স্বাভাবিক কার্যক্রম চলতে থাকবে। তবে, এই ট্রাফিক সপ্তাহের মধ্যেই অনেকে সচেতন হয়ে যাবে বলে আমি মনে করি।’

অবৈধ গাড়ি রাস্তায় নামছে না: এদিকে, ট্রাফিক সপ্তাহ শুরু হওয়ায় কাগজপত্র ঠিক না থাকায় নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন পরিবহনের সংখ্যা অনেক কম। বিশেষ করে নারায়ণগঞ্জ-ঢাকা রুটে চলাচলকারী- উৎসব, বন্ধন, হিমাচল, নারায়ণগঞ্জ-ঢাকা পুরাতন রুটে আনন্দ পরিবহনের গাড়ির সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কম। এ ছাড়া কাগজপত্র ঠিক না থাকায় নারায়ণগঞ্জ-আদমজী চিটাগাং সড়কে শীতলক্ষ্যা পরিবহন চলছে না। অপরদিকে নারায়ণগঞ্জ-চিটাগাং রোডে বন্ধু পরিবহন, চাষাড়া-আদমজী-চিটাগাং রোডে দুরন্ত পরিবহনের গাড়ির সংখ্যা অনেক কম। কারণ অধিকাংশ গাড়ির কাগজপত্র ঠিক নেই। তাই মামলার ভয়ে তারা রাস্তায় গাড়ি নামাচ্ছেন না। ফলে যানবাহন সংকটে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে যাত্রীসাধারণ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর