× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা
ঢাকা, ১৫ অক্টোবর ২০১৮, সোমবার

বদলে গেছে কোদালীছড়ার দৃশ্য

এক্সক্লুসিভ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি | ১০ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার, ৮:১৩

এক সময় দখল আর আবর্জনায় ভরা ছিল পৌর শহরের মাঝ দিয়ে বয়ে যাওয়া কোদালীছড়া। দখল উচ্ছেদ আর ছড়া সংস্কারে এখন পাল্টে গেছে কোদালীছড়ার দৃশ্য। এখন এ ছড়ার বুকে অনায়াসে চলছে নৌকা। পৌর কর্তৃপক্ষের সংস্কার ও দখল মুক্তকরণ কার্যক্রম এবং বিভিন্ন সংগঠনের স্বেচ্ছাশ্রমের কল্যাণে এখন তীব্র জলাবদ্ধতার হাত থেকে রক্ষা পেয়েছেন পৌরবাসী। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শহরতলীর বর্ষিজোড়া পাহাড়ে জন্ম নেয়া কোদালীছড়া দীর্ঘ ১৪ কি.মি পাড়ি দিয়ে পতিত হয়েছে জেলার হাইল হাওরে। শহরের মধ্যদিয়ে এই ছড়াটি প্রবাহিত হওয়ায় যুগ যুগ ধরে শহরের পানি নিষ্কাশনের প্রধান পথ এটি। কিন্তু দুই পাড়ের মানুষের ফেলা ময়লা আবর্জনায় এবং দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় ছড়ার তলদেশ ভরাট হয়ে যায়। অন্যদিকে, ছড়ার তীরে বসবাস করা সুবিধাভোগীমহল কৌশলে ছড়া দখল করে সীমানা প্রাচীরসহ বসতঘর নির্মাণ করে।
এতে শহরের পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ হয়ে যায়। স্বল্প মাত্রার বৃষ্টির পানিতে শহরের বিভিন্ন এলাকার মানুষকে জলজটে আক্রান্ত হয়ে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হতো। গত জানুয়ারি মাসের প্রথম দিকেই মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র ফজলুর রহমান কোদালীছড়া সংস্কারের উদ্যোগ হাতে নেন। এতে সাড়া দেন জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড, সদর উপজেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। শুরু হয় ছড়ার সংস্কার কার্যক্রম। স্বেচ্ছাশ্রমে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালিয়ে ছড়ার কিছুটা পরিষ্কার করা হয়।
অপরদিকে, পৌর কর্তৃপক্ষ এবং বিএডিসির অর্থায়নে ও বিভিন্ন দপ্তরের সার্বিক সহযোগিতায় এসকোভেটর লাগিয়ে উচ্ছেদ করা হয় অবৈধ দখলদারিত্ব। একই সঙ্গে ভরাট হয়ে যাওয়া কোদালীছড়ায় খনন কার্যক্রম চালানো হয়। টানা মাস দেড়েকের শ্রমে ছড়াটি পুরাপুরি দখলমুক্ত না হলেও অনেক প্রশস্ত হয়েছে। সংস্কার কার্যক্রমে পানি নিষ্কাশনের গতি ত্বরান্বিত হয়েছে। এবারের অবিরাম বৃষ্টির জলে শহরবাসীকে নাকানী-চুবানী খেতে হয়নি বলে পৌরনাগরিকদের অভিমত। তারা জানান, কোদালীছড়া সংস্কারের ফলে মনোরম শহরের সৌন্দর্য্য আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। কর্তৃপক্ষের মনিটরিং অব্যাহত এবং নাগরিক সচেতন হলে শুধু জলাধারই বেঁচে থাকবে না পরিবেশ ভারসাম্য বিপর্যয়ের হাত থেকেও রক্ষা পাবে। এদিকে, মৌলভীবাজার শহরকে পরিচ্ছন্ন শহর প্রকল্পের আওতাভুক্ত করার লক্ষ্যে কোদালীছড়া সংস্কার ও দখলমুক্ত করে ড্রেনেজ ব্যবস্থা সংস্কার করা হয়েছে। অপরদিকে, পৌর নাগরিকবৃন্দ যাতে যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা ফেলে পরিবেশ দূষণ এবং পানির প্রবাহ বন্ধ করতে না পারে সে জন্য শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ও প্রতিষ্ঠানের সামনে ডাস্টবিন স্থাপন করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর