ঢাকা, ১৫ আগস্ট ২০১৮, বুধবার

দিল্লিতে বাংলাদেশি সন্দেহে বাংলাভাষীদের হেনস্থার অভিযোগ সাংসদের

কলকাতা প্রতিনিধি | ১০ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার, ১:০৬

বাংলাদেশি সন্দেহে দিল্লি ও সংলগ্ন এলাকায় বাঙালিদের   হেনস্থা করছে পুলিশ। কাজের খোঁজে ভিনরাজ্যে গিয়ে হেনস্থা হতে হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের বাঙালিদের। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকে  এক চিঠিতে এই অভিযোগ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ও সাংসদ অধীর চৌধুরী। এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন তিনি। অধীর অভিযোগ করেছেন,  দিল্লি ও সংলগ্ন এলাকায় বাংলাদেশি সন্দেহে বাঙালিদের তুলে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। তাদেও বেআইনিভাবে আটকে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। অধীর জানিয়েছেন, হয়রানির শিকার অনেকেই তার সংসদীয় এলাকা মুর্শিদাবাদের বাসিন্দা। অবিলম্বে বাঙালিদের ওপর এই নির্যাতন বন্ধের দাবি জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ থেকে নির্বাচিত সাংসদ। উল্লেখ্য, কাজের খোঁজে দিল্লি ও আশেপাশের এলাকাগুলিতে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলার বাসিন্দারা নিয়মিত যান। দক্ষিণ ২৪ পরগনা, মুর্শিদাবাদ, মালদার মতো জেলা থেকে ভিনরাজ্যে যাওয়ার প্রবণতা বেশি। দিল্লি ও আশেপাশের  এলাকায় মূলত নির্মাণকাজর সঙ্গে শ্রমিক হিসেবে যুক্ত এই বাংলাভাষীরা। এছাড়া ছোট দোকান বা রিকশাও চালান অনেকে। মহিলারা বিভিন্ন আবাসনে পরিচারিকার কাজ করেন। নয়ডা, গাজিয়াবাদ বা বৈশালির মতো এলাকায় ছোট ঘর বানিয়ে থাকেন এই রাজ্যের বাঙালিরা। গত বছর জুলাইতে নয়ডার একটি আবাসনে এক বাঙালি পরিচারিকাকে আটকে রাখার ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছিল। তবে এবার আসামে নাগরিকপঞ্জী প্রকাশের পর থেকেই  শুরু হয়েছে বাঙালিদের উপর অত্যাচার। বাংলাদেশি তকমা লাগিয়ে চলছে পুলিশে নির্যাতন।  

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।