× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার

মিঠুন-ফজলের ব্যাটে লড়াই ‘এ’ দলের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১১ আগস্ট ২০১৮, শনিবার, ১০:০৩

ডাবলিনে আইরিশদের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের ম্যাচে ৮ উইকেটে ২৮৩ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ ‘এ’ দল। দলীয় ১২৪ রানে চার উইকেট হারানোর পর মিডল অর্ডারে হাল ধরেন মোহাম্মদ মিঠুন ও ফজলে মাহমুদ। দুইজনের পঞ্চম উইকেট জুটিতে আসে ৭৬ রান। তাতে দলীয় সংগ্রহ পৌঁছায় দুইশ’র ঘরে। মিঠুন ৭৩ ও মাহমুদ ৭৪ রানের দায়িত্বশীল ইনিংস উপহার দেন। আগের ম্যাচে ১৮২ রানের রেকর্ডময় ইনিংস খেলা অধিনায়ক মুমিনুল হক ৪৬ রান করে আউট হন। পঞ্চম ওয়ানডেতে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শেষ পর্যন্ত স্বাগতিকদের ২৮৪ রানের টার্গেট ছুঁড়ে দেয় মুমিনুলের দল। দুই ওপেনার মিজানুর রহমান ২০, জাকির হাসান ১০, নাজমুল হোসেন শান্ত ১৫, আল আমিন ২২ রান করেন।
আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের হয়ে একাই ৫ উইকেট নেন ডানহাতি পেসার পিটার চেজ। সিরিজ বাঁচানোর লক্ষ্যে ৮ ওভার শেষে ১ উইকেটে ৩৭ রান তোলে আইরিশরা। পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম চার ওয়ানডে শেষে ২-১ এ এগিয়ে টাইগাররা। প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়। দ্বিতীয় ম্যাচে ৮৭ রানের জয় পায় বাংলাদেশ। তৃতীয় ওয়ানডেতে ৩৪ রানের জয়ে ঘুরে দাঁড়ায় আয়ারল্যান্ড। চতুর্থ ওয়ানডেতে মুমিনুলের ব্যাটে ভর করে চার উইকেটে ৩৮৬ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ দাঁড় করায় সফরকারীরা। জবাবে ৪৬.১ ওভারে ৩০১ রানে গুটিয়ে যায় আইরিশদের ব্যাটিং লাইনআপ। ৮৫ রানের দুর্দান্ত জয়ে সিরিজে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। আয়ারল্যান্ড সফরে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে নির্বাচকদের আস্থার প্রতিদান দেন মুমিনুল হক। রানআউট না হলে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ড গড়তে পারতেন মুমিনুল। গত বছর ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে আবাহনীর বিপক্ষে মোহামেডানের হয়ে ১৯০ রানের ইনিংস খেলেন রকিবুল হাসান। মুমিনুলের ১৩৩ বলে ১৮২ রানের ইনিংসটিতে ছিল ২৭টি চার ও তিনটি ছক্কার মার। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে দেশের বাইরে বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের আগের সর্বোচ্চ রান তামিম ইকবালের। ২০০৯ সালে জিম্বাবুয়ের মাঠে ১৫৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। তিন নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানের মধ্যে সর্বোচ্চ রানের কীর্তি গড়েন মুমিনুল। আগের অর্জনটি ছিল মেহরাব হোসেনের। ২০০৭ সালে জাতীয় লীগের ওয়ানডেতে ঢাকার হয়ে খুলনার বিপক্ষে ১৫৫ রান করেন তিনি। ওয়ানডের পর তিন ম্যাচের টি- টোয়েন্টি সিরিজে মুখোমুখি হবে দুইদল। ডাবলিনে ম্যাচ তিনটি হবে যথাক্রমে ১৩, ১৫ ও ১৬ই আগস্ট।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর