× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা রম্য অদম্য
ঢাকা, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার
সব হিসাব আরিফের পক্ষে

দৃষ্টি সিলেটের দিকে

প্রথম পাতা

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে | ১১ আগস্ট ২০১৮, শনিবার, ১০:২০

বড় কোনো অঘটন না ঘটলে আজই সিলেটের নির্বাচিত মেয়রের নাম ঘোষণা করবেন নির্বাচন কমিশন। স্থগিত দুটি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ শেষে বিজয়ী প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে। ফলাফলে এগিয়ে
রয়েছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী। তার প্রয়োজন ১৬২ ভোট। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বদরউদ্দিন আহমদ কামরান জিততে হলে প্রায় অসম্ভবকে সম্ভব করতে হবে তার। তবে এরই মধ্যে আরিফুল হক চৌধুরী সিইসি ও রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে ৩০১ মৃত ও প্রবাসে থাকা ভোটারের তালিকা দিয়েছেন। একই সঙ্গে তাকে ভোট ছাড়াই জয়ী প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করার দাবিও জানান। সিইসি বিষয়টি দেখার আশ্বাস প্রদান করলেও গতকাল বিকেল পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো ঘোষণা আসেনি।
এ কারণে আইন অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আজ। স্থগিত দুটি কেন্দ্রের কারণে নগরীর ২৪নং ও ২৭নং ওয়ার্ডের বিজয়ী প্রার্থীর ফলাফল আটকে আছে। আজকে ভোটের পর এ দুটি ওয়ার্ডের ফলাফল জটিলতাও কেটে যাবে। এছাড়া নগরীর ১৯, ২০ ও ২১ নম্বর ওয়ার্ডের দুই মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীর সমানসংখ্যক হওয়ার কারণে আজ ওই তিনটি ওয়ার্ডে পুনরায় ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে। এদিকে সিলেটে ভোট গ্রহণের সার্বিক প্রস্তুতি চূড়ান্ত করেছেন সিলেটের রিটার্নিং কর্মকর্তা। সিলেট সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলিমুজ্জামান গতকাল বিকেলে মানবজমিনকে জানিয়েছেন- শুধুমাত্র মেয়র পদের জন্য স্থগিত হওয়া দুটি কেন্দ্রের ব্যালট আজ সকালে প্রেরণ করা হবে। সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের কেন্দ্রে ইতিমধ্যে ব্যালটসহ নির্বাচন গ্রহণকারী কর্মকর্তাদের পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। নির্বাচনে নিরাপত্তায় কোনো ফাঁক রাখা হচ্ছে না বলে দাবি করেন তিনি। ৩০শে জুলাই সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১৩২টি কেন্দ্রে বিএনপির মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী ৪৬২৬ ভোটে এগিয়ে আছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছে আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। স্থগিত হওয়া কেন্দ্র গাজী বুরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার ২২২১ জন এবং হবিনন্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার ২৫৬৬ জন। দুই কেন্দ্র মিলিয়ে মোট ভোটার ৪৭৮৭ জন। ২৪নং ওয়ার্ডে স্থগিত হওয়া কেন্দ্র গাজী বুরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার ২২২১ জন। স্থগিত হওয়া ওই কেন্দ্র ছাড়া কাউন্সিলর পদে সদ্য সাবেক কাউন্সিলর সোহেল আহমদ রিপন ঠেলাগাড়ি প্রতীক নিয়ে ২৬৩৮ ভোট পেয়ে এগিয়ে আছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হুমায়ুন কবীর সুহিন ঘুড়ি প্রতীক নিয়ে ২৪২১ ভোট পেয়ে রিপনের চেয়ে পিছিয়ে আছেন ২১৭ ভোটে। ২৭নং ওয়ার্ডে স্থগিত হওয়া কেন্দ্র হবিনন্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার ২৫৬৬ জন। স্থগিত হওয়া কেন্দ্র ছাড়া কাউন্সিলর পদে আজম খান ঘুড়ি প্রতীক নিয়ে ৩২৫৪ ভোট পেয়ে আছেন ভালো অবস্থানে। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আব্দুল জলিল নজরুল টিফিন ক্যারিয়ার টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীক নিয়ে ২১০২ ভোট পেয়ে আজম খান থেকে পিছিয়ে আছেন ১১৫২ ভোটে। স্থগিতকৃত দুটি ভোট কেন্দ্রের কারণে আটকে আছে সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড ৮ এবং ৯ এর ফলাফল। ৮নং সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে স্থগিত হওয়া কেন্দ্র গাজী বুরহান উদ্দিন গরম দেওয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্র ছাড়া ৫৯৭৭ ভোট পেয়ে বেশ সুবিধাজনক অবস্থায় আছেন জিপ গাড়ি প্রতীকের প্রার্থী মিসেস রেবেকা আক্তার লাকী। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সালেহা কবীর সেপী ৩৯৩৫ ভোট পেয়ে এখনো লাকীর চেয়ে পিছিয়ে আছেন ২০৪২ ভোটে। ৯নং সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে স্থগিত হওয়া কেন্দ্র হবিনন্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোট ছাড়া ৭৯৭০ ভোট পেয়ে এগিয়ে আছেন চশমা প্রতীকের অ্যাডভোকেট রোকসানা বেগম শাহনাজ। সংরক্ষিত ৭নং ওয়ার্ডের নার্গিস সুলতানা রুমি ও নাজনীন আক্তার কণা সমানসংখ্যক ভোট পান। তাদের ভোটের পরিমাণ ৪ হাজার ১৫৫। প্রার্থী নির্ধারণের পুনঃনির্বাচনে ১৪টি কেন্দ্রে ভোট নেয়া হবে। এসব কেন্দ্রে ৩৪ হাজার ১২৩ জন ভোটার ৯৭টি কক্ষে ভোট দেবেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Md.Nazrul Islam
১০ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার, ১০:১১

No need Mayor election of 2 center.

Unknown
১০ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার, ১২:৪১

নির্বাচনের প্রয়োজন মনে হচ্ছে না

অন্যান্য খবর