× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, বুধবার

প্রেসার কুকারে তৈরি খাবার কতটা ক্ষতিকারক?

শরীর ও মন

| ২৯ আগস্ট ২০১৮, বুধবার, ৫:২৫

প্রেসার কুকারে রান্না করা খাবার স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটা উপকারি— এই নিয়ে তর্ক যেমন চলে, তেমনই রয়েছে ধোঁয়াশাও। কারও মতে, কুকারে বেশি তাপমাত্রায় রান্না হয় বলে খাবারের নিউট্রিয়েন্ট নষ্ট হয়ে যায়। আবার কেউ কেউ বলেন, তাপমাত্রা বেশি হলেও, রান্নার সময় কম লাগে বলে খাদ্যের উপকারিতা বজায় থাকে।

বিজ্ঞান বলছে, সেদ্ধ খাবারের তুলনায় ভাপানো খাবারের উপকারিতা অনেক বেশি। এর ফলে, সবজির পুষ্টি গুণ বজায় থাকে।


সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভিন্ন ভিন্ন খাবারের জন্য প্রেসার কুকারের ব্যবহারও বদলে যায়। চালের ক্ষেত্রে, রান্নার পরে তা ভারী হয়ে যায়। প্রেসার কুকারে মাংস রান্না করলে তা হজম হয় খুব সহজেই।



কিন্তু ‘স্টার্চি ফুড’ (যেমন ভাত, কড়াইশুঁটি, আলু, বিনস, পাস্তা, নুডলস, শস্য) প্রেসার কুকারে রান্না করলে তা থেকে অ্যাক্রিলামাইড নামে এক ধরনের কেমিক্যাল নির্গত হয়। প্রতি দিন এই রসায়নিক বস্তুটি শরীরে গেলে তা থেকে ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। হতে পারে নিউরোলজিক্যাল সমস্যাও। গবেষকদের মতে, প্রজনন ক্ষমতাও কমে যায় এর ফলে।


‘সায়েন্স অফ ফুড অ্যান্ড এগ্রিকালচার’ নামে এক জার্নালের তরফ থেকে একটি সমীক্ষা চালানো হয়েছিল। সেখান থেকে জানা যায় যে, প্রেসার কুকারে রান্না করলে খাদ্যের ‘লেকটিন’ কমে যায়। এটি একটি ক্ষতিকারক কেমিক্যাল যা খাবারের পুষ্টি গুণ কমিয়ে দেয়। সেদিক থেকে দেখতে গেলে প্রেসার কুকারে রান্না করা খাবার খেলে বিশেষ কোনও ক্ষতির আশঙ্কা নেই।


একই সঙ্গে এটাও ঘটনা যে, প্রেসার কুকার ব্যাবহার করলে রান্নায় সময় কম লাগে। এবং জ্বালানিও কম খরচ হয়, অর্থাৎ, সাশ্রয়ও হয়।

সূত্র- এবেলা 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর