× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা
ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, রবিবার

‘ফিট হয়ে দর্শকদের সামনে ফিরতে চাই’

বিনোদন

কামরুজ্জামান মিলু | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৮:৩৬

আমার তো কয়েকদিন ধরে জ্বর। হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লাম। ডাক্তার দেখানোর পর একটু আগে বাসায় এসেছি। আমার ছেলে আইজানও কয়েকদিন আগে অসুস্থ ছিল। কি যে শুরু হলো ! কথাগুলো মানবজমিনকে বলছিলেন বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শাবনূর। বর্তমানে বিশ্রামে আছেন তিনি। তবে এ পর্দাকন্যা সব কাজ বাদ দিয়ে ঘরে বসে থাকা একদমই পছন্দ করেন না। যারা তাকে চেনেন তারা এ বিষয়টা জানেন বলেও জানান তিনি। শাবনূর বলেন, সকলে মিলে আড্ডা দেয়া, একজনের বাসায় গিয়ে হঠাৎ চমক দেয়া বেশ এনজয় করি আমি। আর মাঝে মাঝেই তো আমি কাউকে না কাউকে ফোন দিয়ে বলি, এই চলো ওমুকের বাসায় যাই। এভাবে খোঁজ করতে করতে একটা সময় আড্ডা দেয়ার মতো সার্কেল তৈরি হয়ে যায়।

জুনিয়র-সিনিয়র মিলে একসঙ্গে আড্ডা দিতে আমি অনেক পছন্দ করি। তাই সুযোগ পেলেই আড্ডা দিতে বেরিয়ে পড়ি আমি। গত কয়েক মাসে শোবিজের বাইরেও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে শাবনূরের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। খুব সহজে সকলের সঙ্গে মিশতে পারেন তিনি। ঢাকাই চলচ্চিত্রে অসংখ্য হিট-সুপারহিট ছবি তিনি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন। বর্তমানে চলচ্চিত্রে একেবারেই অনুপস্থিত থাকলেও সামনে নতুন ছবিতে অভিনয় করার কথা রয়েছে তার। মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত এ ছবির নাম ‘এত প্রেম এত মায়া’। কিন্তু অনেকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে, তিনি কাজে ফিরবেন। সেটা কবে জানতে চাইলে শাবনূর বলেন, আমি চাইলেই হঠাৎ করে কাজ শুরু করতে পারি। তবে আমি নিয়মিত ব্যায়াম করছি। বেশ খানিকটা ফিট হয়ে দর্শকদের সামনে ফিরতে চাই। আর ফিট হতে তো সময় লাগবে।

কারণ চাইলেই তো হঠাৎ করে ওজন কমানো বা শুকানো সম্ভব না। ফিট হওয়ার জন্য আরো সময় প্রয়োজন। তবে হ্যাঁ কাজ করার ইচ্ছে আমার আছে। সময়মতোই আমি কাজে ফিরবো। গত বছরের রোজার ঈদের পর অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফেরেন এ অভিনেত্রী। অভিনয়ের বাইরে পরিচালনাও করার ইচ্ছে রয়েছে তার। তবে সে বিষয়ে ঘটা করেই ঘোষণা দেবেন তিনি। শাবনূর বলেন, শুধু চলচ্চিত্রে অভিনয় না, ক্যামেরার পেছনেও পরিচালক হিসেবে কাজ করার ইচ্ছে রয়েছে। আর এসব কিছুর জন্য সময় প্রয়োজন। অভিনয়ের বাইরে রাজধানীর বারিধারা এলাকায় অবস্থিত ‘সিডনি ইন্টারন্যাশনাল স্কুল’-এর দু’জন কর্ণধারের একজন শাবনূর। আরেকজন তারই ছোট বোন ঝুমুর। স্কুল পরিচালনা নিয়েও শাবনূরের রয়েছে যথেষ্ট ব্যস্ততা। তবে নিজের অবস্থান নিয়ে অনেক সন্তুষ্ট এ অভিনেত্রী।

তিনি বলেন, ইন্ডাস্ট্রির ছোট-বড় সকলের ভালোবাসা ও সম্মান পেয়েছি আমি। চলচ্চিত্রের সবাইকে নিয়ে ভালো থাকতে চাই। প্রয়োজনে তাদের পাশে থাকবো। দীর্ঘদিন ধরেই ঢাকা টু সিডনি (অস্ট্রেলিয়া) নিয়েই ছিল তার ব্যস্ততা। বছরের বেশিরভাগ সময় অস্ট্রেলিয়ায় ছিলেন তিনি। তবে এবার সেখানে শিগগিরই যাচ্ছেন না বলে জানালেন। শাবনূর বলেন, আমার বোনসহ পরিবারের অন্যরা কয়েকদিনের মধ্যে ঢাকায় আসবে। আমি এখনই আর অস্ট্রেলিয়া যাব না। বাংলাদেশ আমার দেশ, এখানে থাকতে আমি বেশি পছন্দ করি। আর পরিবারের সকলকে নিয়ে থাকাটাও আমার কাছে অনেক আনন্দের।

সবশেষ ২০১৬ সালের শেষদিকে এ অভিনেত্রী অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফিরে ‘ইউরো স্টার’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানের চুলার বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হিসেবে কাজ করেন। এটি নির্দেশনা দেন আহমেদ ইলিয়াস। এফডিসির একটি ফ্লোরে তিনি শুটিং করেন। এরপর গত বছরের শীতে শুটিংয়ে ফেরার কথা থাকলেও তিনি আর ফেরেননি। মাঝে টিভির একটি অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে গিয়েছিলেন। তবে সামনে নতুন কাজ নিয়ে আবারো ফিরবেন বলে জানালেন শাবনূর। অবশ্য যেহেতু ফিট হয়ে ফিরতে চেয়েছেন সেজন্য শাবনূরের নতুন কাজ দেখতে দর্শকদের আরো কিছুটা সময় অপেক্ষা করতে হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর