× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২০ নভেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার

১৭ বছর পর

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, শুক্রবার, ৮:৩৯

২০০১ সালে সরকারি অনুদানে নির্মিত সাইদুল আনাম টুটুল পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘আধিয়ার’ মুক্তি পায়। টুটুল তার বাবা প্রয়াত শামসুল আলম খানের স্মৃতির উদ্দেশ্যে নির্মাণ করেছিলেন এ চলচ্চিত্রটি। যার জীবন দর্শন ও
জীবনাচরণে নীরবে মিশে ছিল মেহনতি মানুষের প্রতি প্রগাঢ় ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা। তবে এবার তিনি দীর্ঘ ১৭ বছর পর দ্বিতীয় যে চলচ্চিত্রটি নির্মাণ করতে যাচ্ছেন তার গল্প নেয়া হয়েছে ২০০১ সালে আইন ও সালিশ কেন্দ্র কর্তৃক প্রকাশিত ‘নারীর ৭১ ও যুদ্ধ-পরবর্তী কথ্য কাহিনী’ বই থেকে। টুটুল জানান, তার চলচ্চিত্রের নাম দিয়েছেন ‘কালবেলা’। যা নির্মিত হবে ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে সরকারি অনুদানে এবং তার নিজস্ব প্রযোজনা সংস্থা ‘আকার’ থেকে। এরই মধ্যে কিছু কিছু শিল্পী নির্বাচনের প্রক্রিয়া চূড়ান্ত হয়েছে। তবে প্রধান কয়েকটি চরিত্রের শিল্পী চূড়ান্ত করা বাকি রয়েছে।
কিছুদিনের মধ্যেই টুটুল শিল্পী চূড়ান্ত করে এ মাসের শেষের দিকে খুলনায় ‘কালবেলা’র শুটিং শুরু করবেন। দীর্ঘদিন চলচ্চিত্র নির্মাণে বিরতি এবং ‘কালবেলা’ নির্মাণ প্রসঙ্গে সাইদুল আনাম টুটুল বলেন, চলচ্চিত্র তো নির্মাণ করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু যথাযথ প্রযোজক না পেলে তো আর তা সম্ভব নয়। কোনো রকম বাজেট নিয়ে আমার পক্ষে চলচ্চিত্র নির্মাণ সম্ভব নয়। যেহেতু আধিয়ারের পর অনেকেই আমার নির্মিত চলচ্চিত্রের জন্য অপেক্ষা করছিলেন, তাদের কথা ভেবে আমার লেখা গল্প ‘কালবেলা’ সরকারি অনুদানের জন্য জমা দিই। অনুদান পেয়ে গেলাম। আমি আমার মতো করেই সবকিছু গুছিয়ে কাজে নেমে পড়বো শিগগিরই। আশা করছি মুক্তিযুদ্ধে নারীদের ওপর কী কী ধরনের নির্যাতন হয়েছিল তা আমার ‘কালবেলা’ দেখলেই দর্শক সর্বোপরি এদেশের মানুষ বুঝতে পারবেন। চলচ্চিত্রটির সংগীত পরিচালনায় থাকছেন ফরিদ আহমেদ।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর