× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা রম্য অদম্য
ঢাকা, ১৯ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার

জনগণ বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবে: মুকিব

প্রবাসীদের কথা

স্টাফ রিপোর্টার | ১ অক্টোবর ২০১৮, সোমবার, ৫:৫০

দেশের জনগণই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবে বলে মন্তব্য করেছেন দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সৌদি আরব বিএনপির সভাপতি আহমেদ আলী মুকিব। তিনি বলেছেন, বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়েই মিথ্যা ও সাজানো মামলায় সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের মামলা একটা অজুহাত। মূলত খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তাই হচ্ছে বর্তমান সরকারের প্রধান সমস্যা। দেশের মানুষ বাঁধভাঙা উল্লাসে ধানের শীষে ভোট দিয়ে খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাবে। গত রোববার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল লেবানন শাখা আয়োজিত বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আহমদ আলী মুকিব অভিযোগ করেন, ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলায় দলের তারেক রহমানকে ফাঁসানোর ষড়যন্ত্র চলছে। মামলাটি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।
এ মামলায় তারেক রহমান ও বিএনপির কয়েকজন সিনিয়র নেতাকে জড়ানো হয়েছে। আমরা স্পষ্ট করে বলছি, এ হামলায় কোনোভাবেই বিএনপি জড়িত ছিল না। এ মামলায় মুফতি হান্নানকে ২৪০ দিন রিমান্ডে এনে জোর করে স্বীকারোক্তি আদায় করানো হয়েছে। পরে তিনি আদালতে বলেছেন, তাঁর কাছ থেকে জোর করে স্বীকারোক্তি আদায় করা হয়েছে। মুকিব আরো বলেন, এ মামলায় ষড়যন্ত্র করে েেকানো রায় দিলে দেশের জনগণ তা মেনে নেবে না। ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলার রায় নিয়ে চক্রান্ত এবং সারা দেশে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের নামে যে চার হাজার ‘গায়েবি মামলায়’ তিন লাখ লোককে আসামি করা হয়েছে, তার নিন্দা জানানোর পাশাপাশি খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করে তাঁকে বিশেষায়িত হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার দাবি জানান তিনি। মুকিব বলেন, জনগণ একত্রিত হয়ে আন্দোলনের মাধ্যমে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনবে। খালেদা জিয়া ছাড়া দেশে কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। আগামী নিবার্চন নির্দলীয় সরকারের অধীনে হতে হবে কিন্তুু বতর্মান সরকার সেটা না করে, এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করার চেষ্টা করছে। লেবানন বিএনপির সভাপতি মফিজুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব। সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপি প্রতিষ্ঠা সদস্য ও সাবেক সভাপতি মানিক মোল্লা উপদেষ্টা আব্দুল হালিম, বাসানী মোল্লা, খুরশেদ আলম, রুহুল আলামিন, সিনিয়র সহসভাপতি নজরুল ইসলাম, সহ-সাধারণ সম্পাদক ওয়াসিম আকরাম, তাজুল ইসলাম, আব্দুল হাই, বাপ্পু বেপারী, সৈয়দ আলম, পিন্টু আলাউদ্দিন, রফিকুল ইসলাম, গাজী, হাইসেল শাখার সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম নাজমুল হাসান সহ লেবানন বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর