× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার

জাবিতে প্রশ্ন জালিয়াতির অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক ৩

অনলাইন

জাবি প্রতিনিধি | ৮ অক্টোবর ২০১৮, সোমবার, ৭:২৭

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র জালিয়াতি অভিযোগে সাবেক ছাত্রলীগ নেতাসহ  জালিয়াত চক্রের দুই সদস্য ও তাদের গাড়ি চালককে আটক করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

জালিয়াত চক্রের সদস্যরা হলেন- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আশিক-ই-আতহার মিজবাহ। সে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক উপ-দপ্তর সম্পাদক। মিজবাহ ঠাকুরগাঁও জেলা ইসলামবাগ এলাকার মো. নূর ইসলাম সরকারের ছেলে।

অপরজন সাকিব উল সাদাত একই বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী। সে কুড়িগ্রামের উলিপুর থানার ধরনীবাড়ী গ্রামের মো. ফজলুল হকের ছেলে।

এ সময় তাদেরকে নিয়ে আসা গাড়ির চালককে আটক করা হয়েছে বলেও জানান প্রক্টর জুলকারনাইন।

তিনি বলেন, “চক্রের প্রলোভনে পড়া দুই ভর্তিচ্ছুর কাছে তারা ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা করে চায়। গোপালগঞ্জ থেকে আসা ভর্তিচ্ছু গোপালগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের চক্রের মাধ্যমে এসেছে।”  

জালিয়াতির বিষয় স্বীকার করে আটককৃতরা বলেন, “আমরা কোন প্রশ্নপত্র আনিনি। জাকির ও জিসান আমাদেরকে হাতে লেখা প্রশ্নের সাজেশন্স পাঠিয়েছে।”

তবে তাদের কাছে ১৪ লাখ টাকার একটি চেক পাওয়া যায় এবং সঙ্গে সরকারী চাকরির একটি প্রবেশপত্রও ছিল।
একজনের মোবাইল চেক করে তার হোয়াটঅ্যাপে জিসান নামে একজনের আইডি থেকে আসা বেশ কিছু প্রশ্নের ছবি পাওয়া যায়। জিসানের মুঠোফোন নাম্বারে যোগাযোগ করলে নাম¦ারটি  বন্ধ পাওয়া যায়। সকালের শিফটের একাধিক শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলে হোয়াটসঅ্যাপে পাওয়া প্রশ্নের সাথে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নের  প্রায় ১২-১৪ টি প্রশ্ন মিল থাকার বিষয় নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর সিকদার মো. জুলকারনাইন বলেন, “আমরা সন্ধ্যায় তাদেরকে ভ্রাম্যমান আদালতের কাছে সপোর্দ করেছি। তাদের কাছে পাওয়া প্রশ্নের সঙ্গে আমাদের প্রশ্নের কোন মিল পাওয়া যায় নি।”

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর