× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার

কোটি টাকার জমি হারিয়ে অসহায় পরিবারের মানববন্ধন

বাংলারজমিন

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি | ১০ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার, ৮:৩৬

পৈতৃক এবং কেনা জায়গায় বসতবাড়ি ও কৃষিজমি বেদখলের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে একটি ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবার। গতকাল শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে সকাল ১০টায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে পরিবারের অর্ধশতাধিক সদস্য বিভিন্ন স্লোগান সংবলিত ফেস্টুন নিয়ে অংশগ্রহণ করেন।মানববন্ধনে অংশ নেয়া হারুন অর রশিদ জানান, শ্রীপুর পৌর শহরের মাওনা-শ্রীপুর সড়কের পাশে তাদের নিজ মালিকানায় সোয়া পাঁচ বিঘা জমি দীর্ঘদিন ভোগ করে আসছেন। এই জমিতে তাদের নিজের বাড়ি ও ফসলি জমি রয়েছে। সম্প্রতি স্থানীয় আফির বেপারী, আফতাব বেপারী, এমদাদ বেপারী, লতিফ বেপারী ও অন্যরা একাধিক ভুয়া দলিলের মাধ্যমে উক্ত জমির মধ্যে ৪২শতাংশ জমি নিজেদের দাবি করে দখল করে নেয়। দখলকৃত এই জমির প্রচলিত মূল্য প্রায় তিন কোটি টাকা। বাকি জমিতে কৃষি ফসল চাষ করা হতো। কিন্তু সম্প্রতি তারা হারুন অর রশিদ পরিবারকে ওই জমিগুলোতে যেতে বাধা দিচ্ছে এবং দখলের চেষ্টা করছে।
অভিযুক্তরাই এই জমিটি আমাদের কাছে বিক্রি করে। দলিলে তাদের স্বাক্ষর আছে। মানববন্ধনে উপস্থিত হজরত আলী বলেন, অভিযুক্তরা দীর্ঘদিন যাবৎ আমাদের সহজ-সরল পেয়ে নির্যাতন করে যাচ্ছে। তারা স্থানীয়দের কাছে আতঙ্ক। যখন তখন তারা লোকজন নিয়ে সাধারণ মানুষের জমি দখল করে। প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলে না।


মানববন্ধনে অংশ নেয়া অপর প্রতিবেশী মাইনদ্দিন বলেন, মাওনা-শ্রীপুর সড়কে ৮শতাংশ জমির ওপর তিনটি দোকান দখল করেছে এই চক্রটি। স্থানীয় বাসিন্দা মুফতি শহিদুল ইসলাম বলেন, অভিযুক্ত এই চক্রের সদস্যরা এলাকায় সাধারণ মানুষের জমি দখল করে। আমার নিজের জমি অবৈধভাবে দখল করে সেখানে বাড়ি ও মসজিদ তৈরি করেছে। তাদের ভয়ে কেউ এসব কাজে বাধা দিতে আসে না। আমরা এই চক্রের দখলবাজির অবসান চাই। অভিযুক্তদের মধ্যে এমদাদ বেপারী তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, জমিটি আমাদের। জমির বৈধ কাগজপত্র আমাদের কাছে থাকার পরেও দীর্ঘদিন হারুন অর রশিদরা জমিটি দখল করে রাখে। বিষয়টি নিয়ে আদালতেও যাওয়া হয়েছে। আদালত উক্ত জমিতে সব প্রকার কার্যক্রম আপাতত বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। এ বিষয়ে আফির বেপারী বলেন, এই জমিটি আমাদের দাদার সম্পত্তি। হারুন অর রশিদ অবৈধ দখলে ছিলেন। আমরা থানায় জানালে ওসি তাদের স্থাপনা নির্মাণের অনুমতি দেয় ও আমাদের আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দেন। আমরা আদালতে গেলে জমিতে সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ রাখতে নির্দেশ দেয় আদালত। এ অবস্থায় হারুনরা কেন মানববন্ধন করছেন বুঝতে পারছি না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর