× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, বুধবার

‘গুজব শনাক্তকরণ সেল’ গঠন

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১০ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার, ১০:০২

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ঠেকাতে তথ্য অধিদপ্তরের উপ-প্রধান তথ্য অফিসার রিফাত জাফরীনকে প্রধান করে ৯ সদস্যের ‘গুজব শনাক্তকরণ সেল’ গঠন করা হয়েছে। তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে তথ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে এ সেল সামাজিক
যোগাযোগ মাধ্যম নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করবে। গতকাল সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘গুজব শনাক্তকরণ সেল’র কার্যক্রম নির্ধারণ ও সহযোগিতা কার্যকর বিষয়ক সভা শেষে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, গোয়েন্দা সংস্থাসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থার প্রতিনিধিরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

তারানা হালিম বলেন, আমরা আশা করছি, চলতি মাসেই তথ্য মন্ত্রণালয় কর্মকাণ্ড শুরু করে দেবে। আমরা যদি মনে করি তথ্য অধিদপ্তরের এ সেলের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণের জন্য আরো একটি কমিটি গঠন করা প্রয়োজন। তাহলে আরো একটি উচ্চপর্যায়ের কমিটি গঠন করা হবে। তিনি বলেন, এ সেলের কাজ হচ্ছে কোনটি গুজব সেটা শনাক্ত করে মিডিয়াকে অভিহিত করা যে, এটি গুজব।


এটাতে আমাদের মূল চ্যালেঞ্জ হচ্ছে গুজব কোনটাকে আমরা ধরছি। গুজব হচ্ছে- এমন মিথ্যা বা অসত্য বা বানোয়াট তথ্য বা অতিরঞ্জন যেটির কারণে সামপ্রদায়িক সমপ্রীতি ক্ষুণ্ন হয়, রাষ্ট্রের নিরাপত্তা বিঘ্নিত এবং রাষ্ট্র বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে যায়। এবং যেটি যেকোনো একটি আন্দোলনকে ভিন্নপথে প্রবাহিত করতে পারে। এ কাজগুলো করার জন্য ইতিমধ্যে তথ্য অধিদপ্তর সিনিয়র তথ্য অফিসারকে প্রধান করে ৯ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে। কমিটির অধীনে কাজ করবে আরো কতিপয় কর্মকর্তা। এ সেলটিকে কার্যকর করার জন্য প্রথমে নির্ধারণ করা হবে এ মুহূর্তে অনলাইনে কোন গুজবগুলো ঘুরে বেড়াচ্ছে সেটা নির্ধারণ করা। এগুলো আসলে গুজব কিনা সেটা নির্ধারণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোকজন সংশ্লিষ্ট অঞ্চলে গিয়ে নিশ্চিত হবে। গুজব না হলে সেখানে আমাদের কিছু করার থাকবে না। গুজব হলেই আমরা জানাবো যে, এটি গুজব।

তারানা হালিম বলেন, গুজবগুলোর তালিকা তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে ডাক ও টেলি যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে কনটেন্ট ব্লক বা ফিল্টার করার জন্য বিটিআরসি’র কাছে পাঠিয়ে দেবো। গুরুত্ব বিবেচনায় আমরা এটি দৈনিক বা সাপ্তাহিকভাবে করতে পারি। এ জন্য তথ্য মন্ত্রণালয় সহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, গোয়েন্দা সংস্থাসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থার প্রতিনিধিদের এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর