× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, রবিবার

রমেক হাসপাতালে নবজাতক চুরি, লিফট অপারেটর আটক

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে | ১১ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৮:৫৮

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগ থেকে এক নবজাতক চুরির ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বুধবার সকালে হাসপাতালের ওই বিভাগের বারান্দা থেকে বাচ্চা চুরির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সন্দেহভাজন হিসেবে লিফট অপারেটরকে আটক করা হয়েছে। ঘটনা তদন্তে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ২ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। হাসপাতাল ও থানা সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাড়িরঝাড়া গ্রামের পরশ চন্দ্রের স্ত্রী সুধারানী মঙ্গলবার সন্তান জন্ম দেয়ার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আসে। তাকে হাসপাতালের প্রসূতি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। সেখানে ওই রাতে সিজারের মাধ্যমে একটি পুত্র সন্তান জন্ম দেয় সুধা রানী।
গতকাল সকালে নবজাতককে নিয়ে আত্মীয়স্বজনরা বারান্দায় এলে একজন অজ্ঞাত মহিলা শিশুটিকে কোলে নিয়ে আদর করতে থাকে। একপর্যায়ে মহিলাটি বাচ্চাটিকে নিয়ে উধাও হয়ে যায়। পরশ চন্দ্র ও তার আত্মীয়স্বজন বিষয়টি সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানালে হাপাতালের পরিচালক অভিযোগটি কোতোয়ালি থানায় নথিভুক্ত করার জন্য পাঠিয়ে দেন। এরপর পুলিশ হাসপাতালে এসে সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ চেক করেন এবং লিফট অপারেটর কাইয়ুমকে আটক করে। এ ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ প্রসূতি বিভাগের আবাসিক চিকিৎসক ডাক্তার শামিম ও সেবা তত্ত্বাবধায়ক মোসলেমা বেগমকে নিয়ে ২ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে ৭ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. অজয় রায় জানান, আমরা অভিযোগ পাওয়ার পরপরই বিষয়টি পুলিশকে জানিয়েছি। বাচ্চাটি উদ্ধারে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালানো হচ্ছে। কোতোয়ালি থানার ওসি রেজাউল হক জানান, অভিযোগ পাওয়ার পরপরই আমরা তদন্তে নেমেছি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য লিফট অপারেটরকে আটক করা হয়েছে। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যে নবজাতককে উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর