× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার

তবুও শিষ্যদের বাহবা দিচ্ছেন জেমি ডে

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার, কক্সবাজার থেকে | ১১ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:২০

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে সেমিফাইনালে উঠতে পারেনি বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে সেমিফাইনালে স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছে স্বাগতিকদের। কক্সবাজার স্টেডিয়ামে হাজার পনের দর্শকের সমর্থনে গোলের সুযোগ তৈরি করেও গোল করতে পারেনি বাংলাদেশের ফরোয়ার্ডরা। ভালো ফুটবল খেলে ফিনিশিংয়ে দুর্বলতায়  ফিলিস্তিনকে হারাতে না পারলেও শিষ্যদের পারফরমেন্সে খুশি বাংলাদেশের কোচ জেমি ডে। ম্যাচ শেষে এই বৃটিশ কোচ বলেন, স্বাগতিক হিসেবে টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলতে না পারা অবশ্যই আমার জন্য হতাশার। তবে আমি ছেলেদের পারফরমেন্সে হতাশ নই। এর কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে জেমি ডে বলেন, প্রতিপক্ষ র‌্যাঙ্কিংয়ে আমাদের চেয়ে ৯৩ ধাপ এগিয়ে। ওদের খেলোয়াড়রা দীর্ঘদেহী।
এই ম্যাচে আগে আমার ভয়ছিল সেটপিস। ওরা দীর্ঘদেহী। কর্ণার কিংবা ফ্রিকিকে যাতে ওরা বাড়তি সুবিধা না পায় তা নিয়ে আমি কাজ করেছি। আমরা কিন্তু সেটপিস থেকে কোনো গোল হজম করিনি। টুর্নামেন্টের বাংলাদেশের পারফরমেন্স মূল্যায়ন করতে গিয়ে এই কোচ বলেন, লাওসের বিপক্ষে আমরা দারুণ ফুটবল খেলেছি। ফিলিপাইনের বিপক্ষে জিততে না পারলেও আমি খুশি ছিলাম। এ কারণেও ছেলেরা আমাকে গর্বিত করেছে। ফিনিংশের দুর্বলতা প্রসঙ্গে জেমি ডে বলেন, গোল করার মতো স্টাইকার তার দলে নেই। এর কারণ হিসেবে দেশের ফুটবল সংস্কৃতিকে দায়ী করেন এই কোচ। বড় দলের বিপক্ষে গোল করতে হলে শেষ টার্চটা গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে এই কোচ বলেন, এসব দলের বিপক্ষে সুযোগ খুব একটা পাওয়া যাবে না। যখন আসবে তখন শেষ টার্চটা যেন নিখুঁত হয় সেটার দিকে খেয়াল রাখতে হবে। আমি ড্রেসিরুমে সেই জিনিসটাই ওদের বার বার বলেছি। মাঠে সেটা হয়নি। এদিকে স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে না পারার কারণ হিসেবে ভেজা মাঠকে দায়ী করেন ফিলিস্তিনের কোচ আইলাদ আলী নুরুদ্দিনী। ম্যাচ শেষে এই কোচ বলেন, মাঠের কারণেই আমরা গ্রাউন্ডে না খেলে উপর উপরে খেলতে চেষ্টা করেছি। কিন্তু বাংলাদেশের ডিফেন্ডাররা ভালো করেছে। তারা আমাদের এসব পরিকল্পনা ভণ্ডুল করেছে। ম্যাচে একাধিক সুযোগ নষ্ট করা বাংলাদেশি ফরোয়ার্ড নাবীন নেওয়াজ জীবনকে বাহবা দেন ফিলিস্তিনি কোচ। তার মতে, জীবন খুবই ভালো মানের স্ট্রাইকার। ওর প্রচণ্ড গতি। ও বারবার আমাদের ডিফেন্সকে পরীক্ষায় ফেলেছে। ফাইনালের প্রতিপক্ষ নিয়ে নুরুদ্দিনী বলেন, ওরা আমাদের চেয়ে একদিন বেশি বিশ্রাম পাবে ফাইনালের আগে। এটা ওদের জন্য বাড়তি সুবিধা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর