× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা রম্য অদম্য
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার

‘মানুষ মারার ডাক্তার না হয়ে সুচিকিৎসক হতে হবে’

দেশ বিদেশ

আশরাফুল ইসলাম, কিশোরগঞ্জ থেকে | ১১ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৯:৫৮

প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদকে বুধবার দুপুরে নিজের নামে প্রতিষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় প্রেসিডেন্টকে এই সংবর্ধনা দেয়া হয়।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ চিকিৎসকদের মানবিক ও যত্নবান হওয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেছেন, ডাক্তারের অবহেলায় কোনো রোগীর যেন মৃত্যু না হয়, সে বিষয়ে যত্নবান হতে হবে। এ সময় মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে প্রেসিডেন্ট বলেন, এমন মানসিকতা নিয়ে চিকিৎসা কার্যক্রম চালাতে হবে, যেন আমার নামে প্রতিষ্ঠিত এই মেডিকেল কলেজ থেকে পাস করা ডাক্তারদের কেউ ‘মানুষ মারার ডাক্তার’ বলতে না পারে। এ জন্য তিনি মেডিকেল কলেজের শিক্ষা ও পারিপার্শ্বিক পরিবেশ সুন্দর রাখারও আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি তার বক্তৃতায় এ বছর থেকে মেডিকেল কলেজটিতে বিদেশি শিক্ষার্থীরা ভর্তি হতে পারবেন বলেও জানান। দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হওয়ায় প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদকে সংবর্ধনা এবং মেডিকেল কলেজের আবদুল কাদির মোল্লা আবাসিক হলের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজের চেয়ারম্যান প্রেসিডেন্টপত্নী রাশিদা হামিদ। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষানুরাগী আবদুল কাদির মোল্লা। অনুষ্ঠানে কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য প্রেসিডেন্টপুত্র রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. আ.ন.ম নৌশাদ খান, পরিচালক প্রেসিডেন্টপুত্র রাসেল আহমেদ তুহিন, জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ, বিপিএমসহ সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে প্রেসিডেন্ট করিমগঞ্জ উপজেলার জয়কা ইউনিয়নে প্রস্তাবিত বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্ভাব্য জায়গা পরিদর্শন করেন। দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর তিন দিনের সফরে সোমবার দুপুরে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ কিশোরগঞ্জ জেলা শহরে আসেন। ওইদিন বিকালে শহরের গুরুদয়াল সরকারি কলেজ মাঠে প্রেসিডেন্টকে জেলাবাসীর পক্ষ থেকে গণসংবর্ধনা দেয়া হয়। এ ছাড়া সন্ধ্যার পর সার্কিট হাউসে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কিশোরগঞ্জের নানা শ্রেণি- পেশার মানুষ সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সফরের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার দুপুরে প্রেসিডেন্টকে তার কর্মজীবনের স্মৃতি বিজড়িত কিশোরগঞ্জ জজ কোর্ট প্রাঙ্গণে সংবর্ধনা দেয় জেলা আইনজীবী সমিতি। ওইদিন বিকালে তিনি নির্মাণাধীন কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগার পরিদর্শন করেন। এ ছাড়াও তিনি শহরের প্রয়াত বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের পরিবারের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন। তিন দিনের সফর শেষে বুধবার বিকালে প্রেসিডেন্ট ঢাকার উদ্দেশে কিশোরগঞ্জ ত্যাগ করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর