× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার

‘চিকিৎসা করারও টাকা নাই’

বাংলারজমিন

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি | ১২ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার, ৮:৪২

৩০ বছর যাবৎ কাকডাকা ভোরে সংবাদপত্র হাতে নিয়ে ছুটে বেড়ানোই তার পেশা, রোদ বৃষ্টি ঝড় উপেক্ষা করে ছুটে চলা মানুষটি আজ অসুস্থ। নীলফামারীর সৈয়দপুরের পত্রিকা বিক্রেতা আবদুল গাফফারের বয়স এখন ৬০ বছর। ভাড়া-বাড়িতে থাকেন মুন্সিপাড়ায়। স্ত্রী, দু’কন্যা আর ১ ছেলেকে নিয়ে তার বসবাস। বয়স এবং অসুস্থতা তাকে গ্রাস করেছে আষ্টেপৃষ্ঠে। গত ফেব্রুয়ারি মাসে ব্রেইন স্ট্রোক করে ভর্তি হন পার্বতীপুর ল্যাম্ব হাসপাতালে। সেখানে কিছুটা সুস্থ হলেও অবশ হয়ে গেছে বাম হাত। চিকিৎসা ব্যয় বহন করতে না পেরে অসুস্থ শরীর নিয়ে চলে আসতে হয়েছে হাসপাতাল থেকে।
একমাত্র ছেলেটি খুব সামান্য আয় করে। সেই আয় থেকেই বাবার চিকিৎসা করিয়েছেন। এখন তার পক্ষে আর সম্ভব হচ্ছে না। নিজের শারীরিক অবস্থা ক্রমেই খারাপ হয়ে যাচ্ছে তার উপরন্তু দুটি অবিবাহিত মেয়েকে নিয়ে দিশাহারা হয়ে পড়েছে অসহায় মানুষটি। ডাক্তার বলেছে, দূত উন্নত চিকিৎসা করাতে না পারলে ব্রেইন পুরোপুরি ড্যামেজ হয়ে যেতে পারে।  পত্রিকা বিক্রেতা আবদুল গাফফার জানান, আমি ৩০ বছর যাবৎ সংবাদপত্র বিক্রি করে আসছি। আমি অন্য কোনো কাজ করতে পারি না। আমার বয়স হয়েছে এখন আর শরীরে শক্তি পাই না। পত্রিকা নিয়ে আর ছুটতে পারি না। চিকিৎসা করারও টাকা নেই। সমাজের বিত্তবানদের কাছে আহ্বান আমাকে চিকিৎসা করার জন্য আর্থিক সাহায্য করেন। আমি সুস্থ হয়ে আবার পত্রিকা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করতে চাই।
বিকাশ: ০১৯৯২১৪৮৪৯৮।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর