× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা রম্য অদম্য
ঢাকা, ১৯ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার

এখনো শিউরে ওঠে শিশুটি

বাংলারজমিন

বিয়ানীবাজার (সিলেট) প্রতিনিধি | ১২ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার, ৮:৪৩

ঘটনার ১০দিন পেরিয়েছে। এখনো ভুলতে পারেনি সেই দু:সহ স্মৃতি। ভয়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ, আতঙ্কে প্রতিরাতে চিৎকার দিয়ে ঘুম থেকে জেগে ওঠে। ঘরের বাইরে বের হতে চায় না। মাত্র ৮বছর বয়সের এই নাবালিকার কাছে জীবন এখন এক বিভীষিকা। গত ২রা অক্টোবর এক লম্পট তাকে মুখ চেপে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করে। যদিও ময়নুল ইসলাম (৩৫) নামের ওই লম্পটকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। সে মৃত মনির উদ্দিনের পুত্র।
বিয়ানীবাজার উপজেলার খশির ভেউলোপার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ওই নাবালিকার পরিবারের সদস্যরা জানান, ঘটনার দিন সকালে বাড়ির বাইরে খেলা করার সময় লম্পটের খালা কুটিনা বিবি নাবালিকাকে ডেকে বাড়ির ভিতরে নিয়ে যান। এরপর তাকে জোর করে বাথরুমের ভিতরে ঢুকিয়ে মুখ চেপে ধরে ময়নুল। তখন প্রতিবেশী মানিকজান বিবি ঘটনা দেখে ফেললে মেয়েটিকে ছেড়ে দেয় সে। ধর্ষণ চেষ্টার শিকার ওই নাবালিকা কসবা আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির ছাত্রী। তার পিতা অভিযোগ করেন, খালার সহায়তায় ময়নুল তার মেয়েকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। কারণ, ওই মহিলার সহায়তায় সে একাধিক বিয়ে করেছে। মূলত সম্পর্কে খালা হলেও ময়নুলের সকল অপকর্মের মদতদাতা ওই নারী। আমরা তাকে আসামি করতে চাইলেও পুলিশ রহস্যজনক কারণে শুধু ময়নুলকে আসামি করে। অবশ্য মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মহসিন কবির বলেন, প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তদন্তে অন্য কারো সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর