× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার

মালিঙ্গা-রানাতুঙ্গার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১২ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার, ৯:৫৮

এবার যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠলো শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি ক্রিকেটার অর্জুনা রানাতুঙ্গা ও পেসার লাসিথ মালিঙ্গার বিরুদ্ধে। ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ এর সুবাদে তারকাদের বিভিন্ন কলঙ্ক উঠে আসছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। বিশেষ করে অতীতে কোনো অপরাধ করে বেঁচে গেলেও সেই ঘটনাই আবার নতুন করে উঠে আসছে এই হ্যাশট্যাগে। এক ভারতীয় নারী বিমান কর্মী শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ও বর্তমান মন্ত্রী রানাতুঙ্গার বিপক্ষে যৌন হেনস্তার অভিযোগ আনেন। আর মালিঙ্গার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা নারী নিজের নাম গোপন রেখেছেন। ওই মেয়ের কথাগুলো সামাজিত যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে এক বার্তায় তুলে ধরেন ভারতীয় গায়িকা চিন্ময়ী শ্রীপ্রদা। তিনি সেখানে লেখেন, কয়েক বছর আগে মুম্বইয়ে ঘটেছিল এ ঘটনা। তখন আমরা যে হোটেলে ছিলাম, সেখানে আমার বান্ধবীকে খুঁজছিলাম।
এমন সময় মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের লঙ্কান এক বিখ্যাত ক্রিকেটারের সঙ্গে আমার দেখা হয়। তিনি বলেন, আমার বান্ধবী তার রুমেই আছে। তখন আমি তার রুমে গেলাম। কিন্তু সেখানে আমার বান্ধবীকে পেলাম না। সেই ক্রিকেটার তখন আমাকে ধাক্কা দিয়ে বিছানায় ফেলে দেয় এবং আমার মুখের উপর চড়ে বসে। তখন সে আমার স্পর্শ কাতর স্থানে হাত দেয়। কিছুক্ষণ পর হোটেলের এক কর্মচারী রুমের বারের জন্য দরজায় নক করে। পরে হোটেল কর্মচারীর সঙ্গে রুম থেকে বের হয়ে যাই। এদিকে ফেসবুকে রানাতুঙ্গার বিপক্ষে অভিযোগ এনে এক বিমানবালা লেখেন, মুম্বইয়ের জুহু সেন্টার হোটেলের লিফটে ভারতীয় ও শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটারদের দেখে আমার সহকর্মী তাদের অটোগ্রাফ নেয়ার জন্য খেলোয়াড়দের রুমে যেতে চায়। আমিও ওর সঙ্গ নিই। রুমে যাওয়ার পর আমাদের পানীয় (সম্ভবত কিছু মেশানো ছিল) নেয়ার অনুরোধ করা হয়। আমি অস্বীকৃতি জানিয়ে সঙ্গে থাকা বোতলের পানি পান করি। ওরা ছিল ৭ জন ও আমরা দু’জন। এমন অবস্থায় তারা দরজায় চেইন লাগিয়ে দেয়। অস্বস্তি বাড়ায় আমি ওকে আমাদের রুমে ফিরে আসার জন্য জোর করতে শুরু করলাম। কিন্তু সে পুলের পাশে হাঁটতে যেতে চাইল তাদের সঙ্গে। তখন সন্ধ্যা সাতটা বাজে। পুলের পথটা ছিল হোটেলের পেছনের দিকে, পুরোটাই অন্ধকার। আমি পেছনে ফিরে তাকালাম কিন্তু আমার বন্ধু আর ভারতীয় ক্রিকেটারদের কাউকেই দেখতে পেলাম না। তখন রানাতুঙ্গা আমার কোমর ধরে আমার স্পর্শকাতর অংশে হাত দেয়। আমি ভয় পেয়ে চিৎকার শুরু করি। ওর হাত ও পায়ে লাথি মেরেছি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর