× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার
পাক-অজি দুবাই টেস্ট

পাকিস্তানকে জিততে দিলেন না খাজা-পেইন

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১২ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার, ৯:৫৯

রোমাঞ্চকর এক টেস্ট ম্যাচ উপহার দিলো দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম। আর রেকর্ড গড়ে ড্রয়ের পর জয়ের আনন্দে মাতলো অস্ট্রেলিয়া দল। অন্যদিকে শেষদিনে ৭ উইকেট ফেলতে না পারার হতাশায় ডোবে টিম পাকিস্তান। মরুর দেশে অজিদের ড্রয়ের নায়ক সেঞ্চুরিয়ান উসমান খাজা ও অধিনায়ক টিম পেইন। গতকাল টানটান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে ১ বল বাকি থাকতেই ড্র মেনে নেন পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। আর ৪৬২ রানের লক্ষ্যে অজিদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৩৯.৫ ওভারে ৮ উইকেটে ৩৬২ রান। এতে এশিয়ার মাটিতে নিজেদের টেস্ট ইতিহাসে দীর্ঘতম চতুর্থ ইনিংসের রেকর্ড গড়ে অস্ট্রেলিয়া। দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন পেইন।
১৯৪ বল খেলে ৬১ রানের অপরাজিত ইনিংসে ড্র নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন তিনি। ড্রয়ের ভিত গড়ে দেন ম্যাচসেরা বাঁহাতি ওপেনার খাজা। এশিয়ার মাটিতে নিজের প্রথম সেঞ্চুরিতেই রেকর্ডবুকে নাম লেখান তিনি। টেস্টে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে চতুর্থ ইনিংসে সবচেয়ে বেশি বল খেলার রেকর্ড গড়েন ৩১ বছর বয়সী খাজা। ৩০২ বল মোকাবিলায় ১৪১ রানের অবিস্মরণীয় ইনিংস খেলে সমালোচকদেরও জবাব দেন তিনি। আগের রেকর্ডটি ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের ড্যারেন ব্রাভোর। ২০১৬ সালের অক্টোবরে পাকিস্তানের বিপক্ষে চতুর্থ ইনিংসে আউট হওয়ার আগে ২৪৯ বল খেলেন তিনি। ব্রাভোর সেঞ্চুরির পরও ৫৬ রানে হার দেখে ক্যারিবীয়রা। আর সেটি ছিল এশিয়ার মাটিতে প্রথম দিবারাত্রির টেস্ট। খাজার দুর্দান্ত ইনিংসটিতে ছিল ১১ চারের মার। ক্যারিয়ারের ৩৪তম টেস্টে এটি তার সপ্তম শতক। গতকাল ১৩৬/৩ সংগ্রহ নিয়ে পঞ্চম ও শেষদিনের ব্যাটিংয়ে নামে অজিরা। প্রথম সেশনে উইকেটশূন্য থাকেন পাকিস্তানের বোলাররা। ২১৫/৩ সংগ্রহ নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় অজিরা। দ্বিতীয় সেশনের দ্বিতীয় ওভারেই খাজা ও অভিষিক্ত ট্রাভিস হেডের ১৩২ রানের জুটি ভেঙে ব্রেকথ্রু এনে দেন মোহাম্মদ হাফিজ। এরপর আরেক অভিষিক্ত মার্নাস লাবুসেনকে (১৩) ফেরান লেগস্পিনার ইয়াসির শাহ। এতে প্রথম ইনিংসের মতো অস্ট্রেলিয়ার আরেকটি ব্যাটিং ধসের স্বপ্ন দেখে পাকিস্তান। কিন্তু তা হতে দেননি খাজা ও পেইন। ২৮৯/৫ সংগ্রহ নিয়ে চা বিরতিতে যায় অস্ট্রেলিয়া। আর শেষ সেশনে ৩১ ওভারে ঝুলে থাকে ম্যাচের ভাগ্য। ১২৬তম ওভারে খাজাকে এলবিডব্লিউ করে এই জুটি (৭৯) ভাঙেন ইয়াসির। খাজা রিভিউ নিলেও তা বিফলে যায়। ১২৮তম ওভারে মিচেল স্টার্ক ও পিটার সিডলকে আউট করে ম্যাচ জমিয়ে তোলেন ইয়াসির। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি পাকিস্তানের। স্নায়ুর পরীক্ষায় উতরে যান পেইন ও নাথান লায়ন। নবম উইকেটে ২৯ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ম্যাচ ড্রয়ে রূপ দেন দুইজন। ৩৪ বলে ৫ রান করেন স্পিনার লায়ন। প্রথম ইনিংসে মোহাম্মদ হাফিজ ও হারিস সোহেলের সেঞ্চুরিতে ভর করে ৪৮২ রান করে পাকিস্তান। জবাবে দারুণ শুরুর পরও ২০২ রানে গুটিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংস। ওপেনিং জুটিতে ১৪২ রান তোলেন খাজা (৮৫) ও টেস্ট অভিষিক্ত অ্যারন ফিঞ্চ (৬২)। এরপরেই ব্যাটিং ধসের শুরু। মাত্র ৬০ রান যোগ করতেই অলআউট হয় অজিরা। ৩৩ বছর বয়সে টেস্ট অভিষেকেই ৬ উইকেটের কীর্তি গড়েন অফস্পিন অলরাউন্ডার বিলাল আসিফ। বাকি চার উইকেট নেন পেসার মোহাম্মদ আব্বাস। দ্বিতীয় ইনিংসে অজিদের প্রথম তিন ব্যাটসম্যান ফেরান তিনি। ইয়াসিরের ৪ উইকেটের বিপরীতে উইকেটশূন্য থাকেন বিলাল। এর আগে ২৮০ রানের লিড পেয়ে ১৮১/৬ সংগ্রহে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে পাকিস্তান। আবুধাবিতে আগামী ১৬ই অক্টোবর শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
টস: পাকিস্তান, ব্যাটিং
পাকিস্তান: ৪৮২ ও ১৮১/৬ ডিক্লে.
অস্ট্রেলিয়া: ২০২ ও ৩৬২/৮ (১৩৯.৫ ওভার)

ফল: ড্র, ম্যাচসেরা: উসমান খাজা

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর