× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার
যশোর-২

ফ্যাক্টর মিজানুরের ক্লিন ইমেজ

ইলেকশন কর্নার

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর থেকে | ১৩ নভেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার, ৯:৩০

যশোর-২ (চৌগাছা-ঝিকরগাছা) নির্বাচনী আসনে ধানের শীষের টিকিট চান মিজানুর রহমান খান। গতকাল যশোরের চৌগাছা ও ঝিকরগাছা উপজেলার ২২টি ইউনিয়নের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা এক যৌথ বিবৃতির মাধ্যমে এই দাবি জানিয়েছেন দলের হাই কমান্ডের কাছে। তাদের বক্তব্য হচ্ছে, যশোর উন্নয়নের কারিগর মজলুম জননেতা মরহুম তরিকুল ইসলামের আদর্শের লড়াকু সৈনিক স্নেহধন্য মিজানুর রহমান খানকে এই নির্বাচনী এলাকায় ধানের শীষ প্রতীকে দলীয় প্রার্থী করলে বিজয় নিশ্চিত। দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীর সঙ্গে মিজানুর রহমান খানের যে সম্পর্ক তা কোনো অঙ্কে বিচার করা যাবে না। এই সম্পর্ক হৃদয়ের, আত্মার। যে কারণে রাত দিন ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যেকোনো সময় এই নির্বাচনী এলাকার কোনো কর্মীর বিপদ মানেই তিনি নিজের বিপদ মনে করে ঝাঁপিয়ে পড়েন। যার স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি নিজেও একাধিক হামলা মামলার শিকার হয়েছেন। তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সরকারি দলের ক্যাডাররা অগ্নিসংযোগ করেছে।
তার ওপর দফায় দফায় হামলা হয়েছে। তিনি বহুবার কারাবরণ করেছেন। কিন্তু কোনো অন্যায় অত্যাচারের কাছে মাথানত করেননি। ক্লিন ইমেজের অধিকারী এই নেতার পক্ষে তৃণমূলে জোয়ার উঠেছে।

চৌগাছা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইউনুস আলী বলেন, এই নির্বাচনে দলের বিজয় নিশ্চিত করতে মিজানুর রহমান খানের কোনো বিকল্প নেই। জগদীশপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিহাদ আলী বলেন, এই নির্বাচনী আসনে মিজানুর রহমান খান দলের একক প্রার্থী। বৃহত্তর দলে অনেকেই মনোনয়ন চাইতে পারেন। কিন্তু নির্বাচন করার মতো যোগ্য প্রার্থী মিজানুর রহমান খান ছাড়া দ্বিতীয় কেউ নেই। ঝিকরগাছা উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম বলেন, উন্নয়ন বঞ্চিত এই জনপদের মানুষ বিশেষ করে বিএনপির নেতাকর্মীরা গত ১০ বছর যেভাবে নির্যাতিত হয়েছেন, হামলা মামলার শিকার হয়েছেন তা বর্ণনাতীত। একই ধরনের মন্তব্য করেন ঝিকরগাছা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু মুছা মিন্টু, সাবেক ছাত্র নেতা ইমরান সামাদ নিপুণ, হাজীরবাগ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি হাজী মিজানুর রহমান, নির্বাসখোলা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী, চৌগাছা উপজেলা মহিলা দলের আহ্বায়ক মাজেদা খাতুন, যুগ্ম আহ্বায়ক আলেয়া খাতুন, যুবদল নেতা সোহরাব হোসেন প্রমুখ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Toriqul islam
১৩ নভেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার, ১:০৯

তার মত সত্যিকারের রাজনৈতিক ব্যক্তি সাদা মনের সত ব্যক্তি দেশের জন্য অবশ্যই দরকার।

অন্যান্য খবর