× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার

এই শহরে থাকলেই মিলবে দশ হাজার ডলার সঙ্গে বাড়ি

রকমারি

অনলাইন ডেস্ক | ২৫ নভেম্বর ২০১৮, রবিবার, ৭:০৪

বাড়িতে থেকে কাজ করাটাই এখন মার্কিন মুলুকে নয়া ট্রেন্ড। সেই ট্রেন্ডের সঙ্গে তাল মিলিয়েই আমেরিকায় এখন গড়ে উঠছে ছোট ছোট শহর। আর এই সব শহরে বাস করার জন্য নাগরিকদের আকৃষ্ট করতে দেওয়া হচ্ছে নানান সুযোগ। এমনই এক শহর গড়ে উঠেছে ওকলাহোমা প্রদেশের টিউলসা কাউন্টিতে। এই শহরে থাকতে রাজি হলে আর পাঁচটা সুযোগ সুবিধের পাশাপাশি মিলবে ডলারও।

আপনার কাজের ধরন যদি হয় ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’, তাহলেই মিলবে এই শহরে বাস করার ছাড়পত্র। এছাড়া উদ্যোক্তা হলেও আপনাকে স্বাগত জানাবে নতুন গড়ে ওঠা শহর টিউলসা। এক বছর ধরে কয়েকটি কিস্তিতে দশ হাজার ডলার নগদ টাকা নাগরিকদের হাতে তুলে দেবে শহর কর্তৃপক্ষ। শুরুতেই জিনিসপত্র নিয়ে এই শহরে আসার জন্য দিয়ে দেওয়া হবে আড়াই হাজার ডলার।
তার পর প্রতি মাসে বাড়ি ভাড়া বাবদ দেওয়া হবে ৫০০ ডলার করে। আর এক বছর থাকা পূর্ণ হলে হাতে হাতে দিয়ে দেওয়া হবে বাকি দেড় হাজার ডলার। অর্থাৎ, এই শহরে থাকতে রাজি হলে সব মিলিয়ে এক বছরে মিলবে দশ হাজার ডলার। এ ছাড়া মিলবে একদম ফ্রি-তে কাজ করার জায়গাও।


এখনও পর্যন্ত মোট ৬ হাজার জন এই শহরে থাকতে চেয়ে আবেদন জানিয়েছেন। তাঁদের অধিকাংশকেই এই শহরে থাকতে জায়গা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।


আমেরিকাতে নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন, ক্যালিফোর্নিয়া, ফ্লোরিডার মতো বড় শহরে বাড়ছে জনসংখ্যার চাপ। তথ্যপ্রযুক্তি শিল্প আসার পর থেকে দেখা যাচ্ছে, ধনী শহরগুলি আরও ধনী হচ্ছে। অন্য দিকে খালি হয়ে যাচ্ছে ছোট ছোট শহরগুলি। আর্থিক স্বাচ্ছন্দের খোঁজে বহু মানুষ পাড়ি দিচ্ছেন বড় শহরে। সেই ধারা বদলাতেই নতুন ছকে হাঁটা শুরু করেছে টিউলসার মতো ছোট শহরগুলি। আর দেখা যাচ্ছে আর্থিক বৈষম্য রুখতে অনেকটাই সফল তারা। আমেরিকাতে কর্মহীন মানুষ মোট জনসংখ্যার ৩.৭ শতাংশ। সেখানে টিউলসা শহরে বেকারত্বের পরিমাণ তিন শতাংশ। অর্থাৎ, কর্মসংস্থানের পরিস্থিতি অনেকটাই ভাল গোটা দেশের তুলনায়।

অবশ্য শুধু টিউলসা নয়, লোক টানতে একই পথে হাঁটছে আমেরিকার অন্যান্য বেশ কিছু ছোট শহরও। বড় শহরের ওপর চাপ কমাতে এই অভিনব দাওয়াইতে সাড়া দিচ্ছেন সেই দেশের নাগরিকেরাও।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
নওশের উদ্দিন আহমেদ
১ ডিসেম্বর ২০১৮, শনিবার, ৯:০৪

শুধু আমেরিকা বাসীদের জন্যই না সব দেশের নাগরিক গলও যোগাযোগ করতে পারবে?প্রসতাবটি সুন্দর। ধন্যবাদ।

Mohd Mahbubur Rahman
২৫ নভেম্বর ২০১৮, রবিবার, ৯:৪৫

আমাদের দেশ থেকে গিয়ে থাকার সুযোগ দিলে তা হলে মগদ ডলার না দিলেও হতো.

অন্যান্য খবর