× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, রবিবার
ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২

কাফনের কাপড় জড়িয়ে মহাসড়ক অবরোধ

ইলেকশন কর্নার

মাহবুব খান বাবুল, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) থেকে | ২৮ নভেম্বর ২০১৮, বুধবার, ১০:২২

শরীরে কাফনের কাপড় মুড়িয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে ১৪ দলীয় জোটের মনোনয়নের দাবিতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করেছে জিয়াউল হকের সমর্থক ও স্থানীয় লোকজন। ‘বহিরাগত ঠেকাও’ স্লোগানকে সামনে রেখে গতকাল মহাসড়কের সরাইলের কুট্টাপাড়া এলাকায় কয়েক হাজার লোক লাঠি হাতে অবরোধ কর্মসূচি পালন করে। আগামী ১২ ঘণ্টার (গতকালের মধ্যে) অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধাকে জোটের মনোনয়ন না দিলে লাগাতার কর্মসূচি দেয়ার হুমকিও দিয়েছেন ২ আসনের লোকজন। সরজমিনে ও দলীয় সূত্রে জানা যায়, ২০০৮ ও ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দে এ আসনে মহাজোটের মনোনয়নে এমপি হয়েছেন মৃধা। গত ১০ বছরে এলাকায় অনেক উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড করেছেন জাপা’র এ নেতা। তারই মেয়ের জামাতা জাপা’র কেন্দ্রীয় নেতা আখাউড়া উপজেলার কুড্ডা গ্রামের রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া।

২০১৪ সালে রেজাউলকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর) আসনে মনোনয়ন দিয়েছিল মহাজোট। কিন্তু নানা নাটকীয়তায় অজানা কারণে তিনি সেযাত্রা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। এবারও তিনি ৩ আসনেই মনোনয়ন চেয়ে আসছিলেন।
কিন্তু ষড়যন্ত্র পিছু ছাড়েনি মৃধার। গত ৪-৫ দিন আগে জাপা’র তালিকায় ২ আসনে রেজাউলের নাম আসে। এ খবরে ফোঁসে ওঠে জিয়াউল সমর্থক ও ২ আসনের লোকজন। জিয়াউল হককে জোটের মনোনয়ন দেয়ার দাবিতে গতকাল কয়েক হাজার লোক মহাসড়কে নেমে অবরোধ করে বসে। তাদের মাথায় ও শরীরে কাফনের কাপড়। হাতে কাঠের লাঠি। টায়ার জ্বালিয়ে সড়কে দেয় আগুন। ১ ঘণ্টার অবরোধে মহাসড়কের তিন দিকে ১০-১৫ কিলোমিটার সড়কে যানজট লেগে যায়। সড়কে দাঁড়িয়ে বক্তব্য রাখেন- অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা, আওয়ামী লীগের সাবেক সম্পাদক রফিক উদ্দিন ঠাকুর ও যুবলীগের আহ্বায়ক মো. মাহফুজ আলী।

বক্তারা বলেন, ইউপি সদস্য হওয়ার অযোগ্য রেজাউলকে সরাইলবাসী কখনো মেনে নিবে না। শেখ হাসিনা ও এরশাদকে এ আসনে জিয়াউল হককেই মনোনয়ন দিতে হবে। নতুবা আরো কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে। এখানকার মানুষ বহিরাগত কোনো প্রার্থীকে সরাইলে প্রবেশ করতে দিবে না। মৃধা বলেন, আমি ১০ বছরে কাজ করে মানুষের ভালোবাসা অর্জন করেছি। জাপা’র মনোনয়ন প্রদানে কুকর্ম চলছে। রাজনীতিতে এখন নোংরা খেলা শুরু হয়েছে। এখানকার সাবেক সকল এমপি’র চেয়ে আমি বেশি কাজ করেছি। দলের দায়িত্বে থাকা জিএম কাদেরের উদ্দেশে বলেন আজকের (গতকাল) মধ্যে আমাকে মনোনয়ন দিবেন। অন্যথায় লাগাতার কর্মসূচি চলবে। ২ আসনের জনগণ চাইলে আমি বিদ্রোহী প্রার্থী হব।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর